মঙ্গলবার রাত ১২টা থেকে পূর্ব রাজাবাজার লকডাউন

৫:৫৭ অপরাহ্ণ | সোমবার, জুন ৮, ২০২০ আলোচিত

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ইন্দিরা রোড সংলগ্ন পূর্ব রাজাবাজার এলাকায় আগামীকাল মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে লকডাউন শুরু হচ্ছে। সংক্রমণের মাত্রা তুলনামূলকভাবে বেশি হওয়ায় এলাকাকে ‘রেড জোন’ বিবেচনায় এই ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

সোমবার (৮ জুন) মেয়র মো. আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও মোকাবিলার লক্ষ্যে ডিএনসিসি এলাকার জন্য গঠিত কমিটির এক অনলাইন সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফরিদুর রহমান খান ইরান বলেন, আগামীকাল রাত ১২টা থেকে পূর্ব রাজাবাজার এলাকা লকডাউন করা হবে। এমন নির্দেশনার পর থেকে আমরা সব ধরনের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছি।

তিনি বলেন, লকডাউন চলাকালে বাইরে থেকে কেউ এলাকায় ঢুকতে পারবে না। একইভাবে কেউ বাইরেও যেতে পারবে না। কারও খাবারের প্রয়োজন হলে নির্দিষ্ট নাম্বারে ফোন দিয়ে জানাতে হবে। তার বাড়িতে খাবার পৌঁছে দেওয়া হবে। সচ্ছল হলে খবারের বিনিময়ে টাকা নেওয়া হবে। দরিদ্রদের বিনামূল্যে খাবার দেওয়া হবে।

জানা গেছে, লাল, হলুদ ও সবুজ এলাকায় ভাগ করে ঢাকায় শুরু হচ্ছে এলাকাভিত্তিক ভিন্নমাত্রার লকডাউন (অবরুদ্ধ)। প্রাথমিক তালিকায় ওয়ারির একটি জায়গাও রয়েছে। পর্যায়ক্রমে তা অন্যান্য এলাকায় হবে। রাজধানীর বাইরে ইতিমধ্যে নারায়ণগঞ্জের তিনটি এলাকায় লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

করোনা সংক্রমণ বিবেচনা করে চিহ্নিত করা ঢাকার লাল, হলুদ ও সবুজ এলাকা কীভাবে পরিচালিত হবে, তার গাইডলাইনও ইতিমধ্যে ঠিক করা হয়েছে। লকডাউন ঘোষিত এলাকায় চলাচল বন্ধ থাকবে। কেবল রাতে মালবাহী যান চলতে পারবে। ওই এলাকার মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের জন্য থাকবে হোম ডেলিভারি ও নির্ধারিত ভ্যানে করে কাঁচাবাজার কেনাবেচার সুযোগ। এসব এলাকার অফিস-আদালত বা অন্যান্য প্রতিষ্ঠানও সাধারণত বন্ধ থাকবে। খুব প্রয়োজনে চললেও তা হবে খুবই নিয়ন্ত্রিতভাবে। করোনাভাইরাসের পরীক্ষার জন্য থাকবে প্রয়োজনীয়সংখ্যক নমুনা সংগ্রহ বুথ। থাকবে চিকিৎসা পরামর্শের সুযোগ।

কেন্দ্রীয় একটি কমিটির অধীনে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলের নেতৃত্বে পুলিশ, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও সিটি করপোরেশনের প্রতিনিধিসহ স্থানীয় মানুষকে সম্পৃক্ত করে কমিটি গঠনের মাধ্যমে লকডাউনসহ অন্যান্য বিষয় বাস্তবায়িত হবে।