সংবাদ শিরোনাম
ফরিদপুরে ইউপি মেম্বারের প্রকাশ্যে ইয়াবা সেবন, সমালোচনার ঝড় | নায়িকারা মাদকাসক্ত, নায়কেরা কি ধোয়া তুলসি পাতা প্রশ্ন মিমির | কুড়িগ্রামে আবারো বন্যা, নিন্মাঞ্চল প্লাবিত, ধরলার পানি বিপদসীমার উপরে | তিস্তার মেগা প্রকল্প নিয়ে চীনের সাথে আলোচনা চলছে: জাহিদ ফারুক | শার্লি হেবদোর অফিসের কাছে ছুরি হামলায় আহত ৪ | করোনামুক্ত হওয়ার পর মারা গেলেন সংগীতশিল্পী বালাসুব্রহ্মণ্যম | প্যান্টের পকেটে মোবাইলফোন রাখলে হারাতে পারেন যৌন ক্ষমতা: গবেষণা | সুয়ারেসকে বের করে দেওয়ায় বার্সার ওপর ক্ষুব্ধ মেসি | পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে বিএনপি’র দহরম-মহরম পুরনো: তথ্যমন্ত্রী | জিনজিয়ানের ১৬ হাজার মসজিদ গুঁড়িয়ে দিল চীন |
  • আজ ১০ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

করোনায় আক্রান্ত ছিলেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

১১:০৯ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, জুন ১৪, ২০২০ Breaking News

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন। শনিবার (১৩ জুন) রাতে মারা যাওয়ার পর তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। রবিবার (১৪ জুন) সকালে তার রিপোর্ট পাওয়া যায়।

সকাল সোয়া ১০টায় ধর্ম মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আনোয়ার হোসাইন গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

এসময় তিনি বলেন, ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর মরদেহ তার গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জে নেওয়া হবে। সেখানেই জানাজা শেষে তাকে দাফন করা হবে।

এর আগে শনিবার (১৩ জুন) রাত ১১টা ৪৫ মিনিটে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মো. আবদুল্লাহ। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। তিনি ডায়াবেটিসসহ নানা স্বাস্থ্যগত জটিলতায় ভুগছিলেন।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ বাংলাদেশের প্রথম মন্ত্রিসভার সদস্য, যিনি প্রথম কোনও ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন।

এর আগে শনিবার মৃত্যুবরণকারী আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সিরাজগঞ্জ -১ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ নাসিম কোরোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলেও চিকিৎসার পর তার করোনা নেগেটিভ হয়। তবে করোনাভাইরাস আক্রান্ত অবস্থায় তার ব্রেন স্ট্রোক হয়। যার কারণে কয়েকদিন ডিপ কোমায় থাকার পর তিনি মারা যান।

শেখ আব্দুল্লাহ ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান। তিনি ১৯৪৫ সালের ৮ সেপ্টেম্বর গোপালগঞ্জ জেলার মধুমতী নদীর তীরবর্তী কেকানিয়া গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত ধার্মিক মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা শেখ মতিউর রহমান এবং মা রাবেয়া খাতুন। চার ভাই তিন বোনের মধ্যে তিনি দ্বিতীয়।

শেখ আব্দুল্লাহ আওয়ামী লীগে ত্যাগী নেতা হিসেবেই সমধিক পরিচিত। রাজনীতিতে তার ত্যাগ বেশ আলোচিত। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ফ্রন্ট মুজিব বাহিনীর সঙ্গে সরাসরি সম্পৃক্ত হয়ে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন তিনি। কাউন্সিলের মাধ্যমে তিনি গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। দীর্ঘদিন তিনি এ দায়িত্ব পালন করেন। তিনি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে আসছেন।