গভীর রাতে জরুরি বৈঠকে মোদি

৩:০৪ অপরাহ্ণ | বুধবার, জুন ১৭, ২০২০ আন্তর্জাতিক
modiamit

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ লাদাখ সীমান্তে ভারত ও চীনা সৈন্যদের মধ্যে যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়েছে তা নিয়ে মঙ্গলবার সেনাপ্রধান জেনারেল এমএম নারাভানের সঙ্গে গভীর রাত পর্যন্ত বৈঠক করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

সংবাদসংস্থা এএনআই জানাচ্ছে, ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ এবং বিদেশমন্ত্রী এস জয় শঙ্কর। রাত ১০ টা নাগাদ বৈঠক শুরু হয়। সীমান্তের উত্তেজনা, পরবর্তী কূটনৈতিক পদক্ষেপ, সেনাবাহিনীর অবস্থান ইত্যাদি নিয়ে গভীর রাত পর্যন্ত আলোচনা করেন তাঁরা।

মঙ্গলবার দুপুরের পরই সংঘর্ষের খবর প্রকাশ্যে আসে। প্রথমে জানা যায় ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক কর্নেল ও দুই জওয়ান চীনা সেনাদের হামলায় নিহত হয়েছেন। বুধবার সকালে নিহতের সংখ্যা আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। অন্তত ২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। প্রায় ১১০ জন গুরুতর আহত। ফলে নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

তারপর এও জানা যায়, শুধু ভারতীয় জওয়ানরা মারা যাননি। পাল্টা আঘাতে চীনা সেনাদেরও প্রাণ গেছে। চীনের সরকারি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, সে দেশেও বেশ কিছু সেনার মৃত্যু হয়েছে। ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআই’র প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, এ সংঘর্ষে কমপক্ষে ৪৩ জন চীনা সেনা নিহত হয়েছে।

এর আগে, ১৯৭৫ সালে ভারত-চীন সীমান্তে শেষবার কোনও সেনা জওয়ানের মৃত্যু হয়েছিল। এরপর থেকে ওয়েস্টার্ন সেক্টরে লাদাখে বা ইস্টার্ন সেক্টরে অরুণাচলে দুই দেশের বাহিনীর মধ্যে হাতাহাতি-মারামারি কম হয়নি। কিন্তু এ ধরনের প্রাণঘাতী মারামারি কখনও হয়নি। অবাক করার বিষয়, এই সংঘাতে কোনও পক্ষই আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করেনি। লোহার রড, লাঠি, পাথর নিয়ে হামলা করেছে চীনা সেনা। তারপরই প্রত্যাঘাত করেছে ভারতীয় সেনারা।