• আজ ১২ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

লঞ্চের ধাক্কায় নৌকা ডুবে যুবকের মৃত্যু, দম্পতি নিখোঁজ

১২:০৭ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুন ১৮, ২০২০ দেশের খবর, বরিশাল

কৃষ্ণ কর্মকার, বাউফল প্রতিনিধি- ঢাকা থেকে পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কালাইয়া বন্দরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা এমভি ঈগল-৪ নামের একটি ডাবল ডেকার লঞ্চের থাক্কায় আনোয়ার হোসেন (৩২) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ সময় নিখোঁজ হয়েছেন আসলাম হোসেন ও জান্নাত বেগম নামের এক দম্পতি।

আজ বৃহস্পতিবার ভোর পাঁচটায় উপজেলার নুরাইনপুর লঞ্চঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত আনোয়ার উপজেলার কেশবপুর ইউনিয়নের ভরিপাশা গ্রামের হাফেজ খানের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় কয়েকজন জানায়, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা ঈগল-৪ নামে ঢাকা-কালাইয়াগামী একটি ডাবল ডেকার লঞ্চের ধাক্কায় নুরাইনপুর লঞ্চঘাটের অদূরের খেয়াঘাট এলাকায় ১০-১২ জন লোক নিয়ে উল্টে যায় খেয়ার নৌকা। এ সময় স্থানীয়রা অন্যান্য যাত্রীদের সাথে আনোয়ারকে উদ্ধার করে তীরে উঠালে কিছু সময় পরেই মারা তিনি (আনোয়ার)।

অপরদিকে নিখোঁজ রয়েছে কেশপুর ইউনিয়নের ভরিপাশা গ্রামের মো. আসলাম হোসেন ও জান্নাত বেগম নামে এক দম্পতি। বেলা ১১টা পর্যন্ত ওই তাদের কোন খোঁজ মেলেনি।

স্থানীয়দের অভিযোগ, লঞ্চের ড্রাইভার (মাষ্টার) মো. হানিফ মিয়ার অসাবধানতার কারণেই এমন দুর্ঘটনা ঘটেছে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে মাস্টার মো, হানিফ বলেন, নদীর স্রোতে নৌকা এসে লঞ্চের সাথে ধাক্কা খায়। তার দাবি লঞ্চটি ঘাটে নোঙ্গর করা ছিল, এখানে তার কোন অসাবধানতা ছিল না।

এ বিষয়ে ঈগল লঞ্চের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর মো. আলমগীর হোসেন বলেন, এখানে তাদের কোন দোষ ছিল না। লঞ্চ ঘাটে নোঙ্গর করা ছিল নৌকা লঞ্চে ধাক্কা লাগেনি।

বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, একজন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। তবে ওই ঘটনায় আহত কিংবা নিখোঁজের সঠিক তথ্য এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে॥