চীনের বাজারে আরও ৫১৬১ পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা পেল বাংলাদেশ

৫:২৫ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, জুন ১৯, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ
chaina

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ চীনের বাজারে নতুন আরও ৫ হাজার ১৬১টি পণ্যের শুল্কমুক্ত দ্বিপক্ষীয় রপ্তানি সুবিধা পেয়েছে বাংলাদেশ। এর মাধ্যমে দেশটিতে মোট শুল্কমুক্ত পণ্যের সংখ্যা দাঁড়াল আট হাজার ২৫৬টি। এর ফলে চীনে বাংলাদেশের মোট রফতানি পণ্যের ৯৭ শতাংশই শুল্কমুক্ত সুবিধার আওতায় এল।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ তথ্য কর্মকর্তা তৌহিদুল ইসলাম বলেন, সরকারের অর্থনৈতিক কূটনীতির অংশ হিসেবে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এ সুবিধা দেয়ার অনুরোধ করে চীন সরকারকে চিঠি দেয়া হয়। এ অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে চীনের স্টেট কাউন্সিলের ট্যারিফ কমিশন সম্প্রতি এ সুবিধা প্রদান করে নোটিশ জারি করে।

তিনি বলেন, স্বল্পোন্নত দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে এ সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে। ৫১৬১ বাংলদেশি পণ্য এ শুল্কমুক্ত সুবিধার আওতায় থাকবে। বাংলাদেশ ইতোমধ্যে চীন থেকে এশিয়া-প্যাসিফিক বাণিজ্য চুক্তির (আপটা) আওতায় তিন হাজার ৯৫ পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা ভোগ করে থাকে। ফলে শুল্কমুক্ত সুবিধার আওতায় বাংলাদেশকে চীনের পক্ষ থেকে আট হাজার ২৫৬ পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা দেয়া হলো।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে বলেছেন, বাংলাদেশ যে ইকোনমিক ডিপ্লোমেসি বা অর্থনৈতিক কূটনীতি চালু করেছে, এটা সেদিক থেকে খুব বড় একটা অর্জন। চীন সরকারের এই সিদ্ধান্তের ফলে দেশটির বাজারে বাংলাদেশ যত পণ্য পাঠাবে তার ৯৭ শতাংশই শুল্ক মুক্ত সুবিধা পাবে। এটাকে এক অর্থে শত ভাগ শুল্কমুক্ত রপ্তানি সুবিধাও বলা হচ্ছে। কারণ বাংলাদেশ থেকে যত ধরনের পণ্য চীনে রপ্তানি হয় তার মধ্যে মাত্র ৩টি বাদে সবই বিনা শুল্কে দেশটির বাজারে ঢুকতে পারবে।