সংবাদ শিরোনাম
বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কের অবনতি, মোদিকে দুষলেন রাহুল | ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফোনে কথা বললেন বাহরাইনের যুবরাজ | ভারতসহ তিন দেশের নাগরিকদের ওপর সৌদির ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা | আন্তর্জাতিক সংস্থার কাছে ‘হিডেন হিরো’ উপাধি পেল ঝিনাইগাতীর মোশারফ | মানিকগঞ্জে নতুন আরও ১৪ জনের করোনা শনাক্ত | হাতীবান্ধায় উপ-নির্বাচনে ১০ জনের মনোনয়ন পত্র দাখিল | বাগেরহাটে কোষ্টগার্ডের অভিযানে ৩ লাখ বাটা পোনা অবমুক্ত | সাওতাল কিশোরীকে ধর্ষণ, বিমান ও সেনা সদস্যসহ দুইজনের বিরুদ্ধে মামলা | ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রীকে নৌকায় তুলে ধর্ষণ! ধর্ষক গ্রেফতার | ‘দুর্নীতির প্রশ্নে কোনো ছাড় দেওয়া হচ্ছে না’- স্বাস্থ্যমন্ত্রী |
  • আজ ৯ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

৪ বছর পর আনু হত্যার রহস্য উদঘাটন করলো সিআইডি

৩:৫১ অপরাহ্ণ | শনিবার, জুন ২০, ২০২০ খুলনা
cid

মনিরুজ্জামান মনির, শৈলকুপা ঝিনাইদহ: ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডু উপজেলার ভালকি গ্রামের আনেয়ার হোসেন আনু হত্যার ৪ বছর পর রহস্য উদঘাটন করে এই হত্যা মামলার ৩ জন আসামিকে গ্রেফতার করে আইনের কাছে সোপর্দ করেছে সি.আই.ডি ঝিনাইদহ শাখা।

জানা গেছে ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারী মাসের ৩ তারিখে আনোয়ার হোসেন আনু কে হাত পা বেধে জবাই করে ঐ গ্রামের ফাকা মাঠের ভিতর রেখে যায় দূর্বৃত্তরা। ঘটনার পরের দিন ০৪/০২/২০১৬ ইং তারিখে ভিকটিমের স্ত্রী মোছা: বিউটি খাতুন বাদী হয়ে হরিনাকুন্ডু থানায় লিখিত এজাহার দায়ের করে। যার মামলা নং ০৩.তাং০৪/০২/১৬। থানায় মামলা করার পরে কিছু আসামি ধৃত হলেও রহস্য উদঘাটন করতে ব্যার্থ হন থানা পুলিশ।

মামলার তদন্ত করে বিজ্ঞ আদালতে চুড়ান্ত রিপোর্ট (FRT) দাখিল করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। বিজ্ঞ আদালত পরে বাদীর নারাজির প্রেক্ষিতে মামলাটি পুনঃতদন্ত করার জন্য দায়িত্ব দেন পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেষ্টিকেশন (পি.বি.আই) এর উপর। কিন্তু পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেষ্টিকেশন (পি.বি.আই) তদন্ত শেষে আবার চুড়ান্ত রিপোর্ট (FRT) দাখিল করেন বিজ্ঞ আদালতের নিকট।

পরিশেষে বিজ্ঞ আদালত বাদীর নারাজীর প্রেক্ষিতে ০৫/০৯/২০১৯ তারিখে পুনঃ মামলার তদন্তভার হস্তান্তর করেন সি.আই.ডি ঝিনাইদহ শাখা বরাবর। সি.আই.ডি‘র তদন্তকারী কর্মকর্তা মামলার তদন্তভার গ্রহণ করে গোপনে ও প্রকাশ্যে মামলার তদন্ত পরিচালনা করে মামলার রহস্য উদঘটন সহ মামলার ৩ জন আসামিকে গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতের নিকট সোপর্দ করেছেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই মাসুদ রানা জানান, বিজ্ঞ আদালত সি.আই.ডি বরাবর ০৫/০৯/১৯ তারিখের স্বাক্ষরিত আদেশের মাধ্যমে মামলাটি তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আদেশ দেন। আমি মামলা তদন্তভার পায় ১৯/১২/১৯ তারিখে।আমি মামলার তদন্তকারে গোপনসূত্রে মামলার রহস্য জানতে পারি। মামলার সন্দিগ্ধ আসামিকে ধরার জন্য সোর্স নিয়োগ করি এবং আমি ও এস আই সেলিম রেজা অভিযান চালিয়ে গত ইং১৭/০৬/২০২০ তারিখে এই মামলার সন্দিগ্ধ আসামি সাহেব আলী কে কুষ্টিয়া জেলার ঝাউদিয়া বাজার নামক স্থান থেকে ধৃত করতে সক্ষম হই। ধৃত আসামি সাহেব আলী হত্যার সাথে সম্পৃক্ত থাকার কথা স্বীকার করে বিজ্ঞ আদালতের নিকট ১৬৪ ধারার বিধান মতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন। তদন্ত অব্যহত থাকায় তথ্য গোপন রেখেছেন বলে তিনি জানান।

তিনি আরো বলেন ধৃত আসামি সাহেব আলীর বলামতে তার সহযোগি আসামিদ্বয়কে গ্রেফতারের জন্য পুলিশ পরিদর্শক তোফাজ্জেল হোসেন এর নেতৃত্বে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে (১)শাহিন কবির ঝলক(৩৮),পিতা:মৃত আবুল মিয়া,(২) রাশিদুর ইসলাম (কুটি),(৪৩), পিতা: ইসলাম বিশ্বাস উভয় সাং-কিছমত ঘোড়াগাছা, থানা: হরিনাকুন্ডু,জেলা ঝিনাইদহ দ্বয়কে তাদের বসতবাড়ীর সামনে পাকা রাসআর উপর হিইতে ধৃত করতে সক্ষম হন। ধৃত আসামিদের বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করিলে বিজ্ঞ আদালত আসামিগনকে জেলহাজতে প্রেরন করেছেন।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, শাহিন কবির ঝলক(৩৮), পিতা:মৃত আবুল মিয়া এর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, বিষ্ফোরক ও হত্যা মামলা সহ বেশ কিছু মামলা আছে। এলাকাবসী আরো জানান দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন সময় এলাকার মানুষের নিকট চাঁদা দাবী করে এবং ভয়ভীতি দেখিয়ে চাঁদা আদায় করলেও তাদের ভয়ে এলাকায় কেউ পুলিশের কাছে মুখ খুলতে রাজি হন না। তবে তাদের বিরুদ্ধে এলাকার কিছু বসতী মানুষ হরিনাকুন্ডু থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন বলে জানা যায়।