হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন মাশরাফী

২:৫৮ অপরাহ্ণ | সোমবার, জুন ২২, ২০২০ খেলা

স্পোর্টস ডেস্কঃ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত জাতীয় দলের ক্রিকেটার মাশরাফী বিন মুর্তজা শীঘ্রই হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। এমনটাই জানিয়েছে বিশ্বস্ত সূত্র।

সোমবার (২২ জুন) সকাল থেকেই হঠাৎ করে বেড়েছে বুকে ব্যথা। ব্যথা বাড়ায় মাশরাফীকে হাসপাতালে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তার পরিবার।

মাশরাফীর এজমার সমস্যা পুরানো। যে কারণে বুকে ব্যথা বেড়েছে। তাই চিকিৎসক পরামর্শ দিয়েছেন টেস্ট করাতে। এই খবর লেখা পর্যন্ত মাশরাফীকে রাজধানীর হাসপাতালে ভর্তি প্রক্রিয়া চলছে।

এর আগে করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হওয়ার পর শুক্রবার (২০ জুন) দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন মাশরাফী। সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকে নিজের ভেরিফায়েড পেজে একটি পোস্ট দিয়ে এ দোয়া চেয়েছেন।

সন্ধ্যা ৬টা ২৪ মিনিটে দেয়া পোস্টে তিনি লেখেন, “আজকে আমার রেজাল্ট COVID-19 পজিটিভ এসেছে। সবাই আমার জন্যে দোয়া করবেন যাতে খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠতে পারি।

আক্রান্ত সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়ে গেছে। আমাদের সবাইকে এখন আরো সতর্ক হতে হবে। সবাই ঘর থেকে বিনা প্রয়োজনে বের না হই।

আমি বর্তমানে বাসায় থেকেই চিকিৎসা নিয়ে যাচ্ছি এবং প্রয়োজনীয় বিধি নিষেধ মেনে চলছি।

করোনা নিয়ে আতংক নয়, সচেতনতা বৃদ্ধি প্রয়োজন।”

এর আগে মাশরাফির করোনায় আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন মাশরাফীর বন্ধু বাবুল। শুক্রবার বিকেল তিনটায় মোবাইল ফোনে এসএমএসের মাধ্যমে মাশরাফীর করোনা পজিটিভ নিশ্চিত করা হয়।

এদিকে মাশরাফীর অসুস্থতায় রোগমুক্তি কামনা করে বার্তা দিয়েছেন বাংলাদেশের ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, পাকিস্তানের ধারা ভাষ্যকার রমিজ রাজা, তাঁর সতীর্থ খেলোয়াড় মুশফিকুর রহিম ও তাসকিন আহমেদ।

রোববার (২১ জুন) ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকে নিজেদের পেজে লিখেছেন, ‘মহান রাব্বুল আলামিন আল্লাহর কাছে প্রার্থনা, দ্রুত সুস্ হয়ে ফিরে আসো আমাদের সকলের প্রিয় মাশরাফী। দোয়া করি আল্লাহ তোমাকে এবং তোমার পরিবারের সবাইকে ভালো রাখুন। আমিন।’

পাকিস্তানের ধারা ভাষ্যকর রমিজ রাজা টুইটারে লিখেছেন, করোনা থেকে মুক্তির জন্য মাশরাফীর জন্য অনেক অনেক দোয়া ও শুভকামনা।

শনিবার (২০ জুন) সন্ধ্যায় সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকে নিজেদের পেজে মুশফিক ও তাসকিন শুভকামনা জানান।

মুশফিক তার পেজে লিখেছেন, তুমি সবসময় চ্যাম্পিয়ন। এবং আল্লাহ চাইলে তুমি এই প্রতিকূল অবস্থা কাটিয়ে উঠবে। কোটি কোটি মানুষ তোমার জন্য দোয়া করছে। দেশের জন্য তোমাকে প্রয়োজন জনাব এমআর১৫।