গোপালগঞ্জে নকল স্যাভলন উদ্ধার, দু’টি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

sav
❏ মঙ্গলবার, জুন ২৩, ২০২০ ঢাকা

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: গোপালগঞ্জে নকল স্যাভলন মজুদ, গোটা জেলায় সরবরাহ ও অতিরিক্ত মূল্যে বিক্রির অপরাধে দু’টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মঙ্গলবার ভ্রম্যামাণ আদালতের বিচারক ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শেখ সালাউদ্দীন দিপু শহরের বীণাপাণি স্কুলে মোড়ের বিসমিল্লাহ এন্টার প্রাইজকে ৩০ হাজার ও নতুন বাজার রোডের মা বাবা এন্টারপ্রাইজকে ১ লাখ টাকা জরিমানা করেন। অভিযান চালিয়ে ওই দু’ প্রতিষ্ঠান থেকে ৭৫ লিটার নকল স্যাভলন উদ্ধার করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শেখ সালাউদ্দীন দিপু জানান, প্রথমে বিসমিল্লাহ এন্টারপ্রাইজে অভিযান চালানো হয়। পরবর্তীতে ওই নকল স্যাভলনের মূল ডিলার মেসার্স মা বাবা এন্টারপ্রাইজে অভিযান চালানো হয়। সেখান থেকেও নকল স্যাভলন উদ্ধার করা হয়।

প্রতিটি স্যাভলনের বোতলের পিছনের স্টিকার বদলে উৎপাদন তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে। সেখানে উৎপাদন তারিখ এপ্রিল, ২০২০ করে নতুন স্টিকার লাগানো হয়েছে। এছাড়া মূল কার্টুনের গায়ে স্টিকারে উৎপাদন তারিখ উল্লেখ করা হয়েছে জুন, ২০২০। উৎপাদন তারিখ জুন ২০২০ হলেও ওই স্যাভলন বিসমিল্লাহ এন্টারপ্রাইজে ডেলিভারি দেওয়া হয়েছে মে মাসে। গোপালগঞ্জ ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মহেশ্বর রায় এটি নিশ্চিত করেন।

তিনি আরো জানান, স্যাভলন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান এসিআই কোম্পানীর গোপালগঞ্জের ম্যানেজার উদ্ধারকৃত স্যাভলন এসিআই’র পণ্য নয় বলে নিশ্চিত করেন। এছাড়া এক লিটার স্যাভলনের এমআরপি যেখানে ২৫০ টাকা, সেখানে প্রতি বোতল বিক্রি করা হচ্ছে ৩৫০-৫০০ টাকায়। অভিযানকালে প্রায় ৭৫ লিটার নকল স্যাভলন উদ্ধার করা হয়।

মা বাবা এন্টারপ্রাইজকে নকল স্যাভলনের ডিলার হয়ে সমগ্র জেলায় ছড়িয়ে দেওয়া, মজুদ করা ও অতিরিক্ত মূল্যে বিক্রি করার অপরাধে ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া বিসমিল্লাহ এন্টারপ্রাইজকে নকল স্যাভলন মজুদ ও অতিরিক্ত মূল্যে বিক্রি করার অপরাধে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন