সংবাদ শিরোনাম
ট্যাঙ্কারের সঙ্গে সংঘর্ষে ভেঙে পড়ল মার্কিন বিমান | মানিকগঞ্জে সাংবাদিকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে সহকর্মীদের মানববন্ধন | সন্তানকে বিক্রি করে দিলেন বাবা: ইউরিয়া খেয়ে মায়ের আত্মহত্যার চেষ্ঠা! | আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর রোগমুক্তি কামনায় দোয়া-মোনাজাত | লাশের মিছিল বেড়েই চলেছে, তবুও আলোচনায় নারাজ আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান | বাংলাদেশের সাথে বন্ধ থাকা স্থলবন্দর খুলে দিতে ভারতকে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর অনুরোধ | কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ’র মৃত্যুতে দেশে একদিনের রাষ্ট্রীয় শোক | ইয়াবা দিয়ে ‘ফাঁসাতে’ গিয়ে নিজেই ফেঁসে গেলেন এএসআই | কাল হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাচ্ছেন ইউএনও ওয়াহিদা | খালেদার যুক্তরাজ্যে যাওয়ার ব্যবস্থা করতে চান ডিকসন |
  • আজ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিচার চেয়ে এবার রাস্তায় দাঁড়ালেন সাংবাদিক পারুল

৬:০৭ অপরাহ্ণ | বুধবার, জুন ২৪, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- যৌতুক দাবি, নির্যাতন ও ভ্রূণ হত্যার অভিযোগে স্বামী রেজাউল করিম প্লাবনের বিরুদ্ধে মামলা করেছিলেন সমকালের স্টাফ রিপোর্টার সাজিদা ইসলাম পারুল। বিচার চেয়ে ঘুরেছেন দ্বারে দ্বারে। কিন্তু পুলিশ অদৃশ্য কারণে প্লাবনসসহ মামলার আসামিদের গ্রেপ্তারই করছে না। অভিযানের নামে যেন ইঁদুর-বিড়াল খেলছে পুলিশ। শেষ পর্যন্ত এই গণমাধ্যমকর্মী প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চেয়ে একাই দাঁড়ালেন রাস্তায়। প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে কান্নায় বুক ভাসালেন নির্যাতনের শিকার পারুল।

বুধবার (২৪ জুন) পারুল ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে প্ল্যাকার্ড নিয়ে একাই মানববন্ধন করেন। তার হাতে থাকা প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমি কি বিচার পাবো না?/ যৌতুক দাবি, নির্যাতন ও ভ্রূণ হত্যাকারী প্লাবনের গ্রেপ্তার চাই।’ বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত এই মানববন্ধনের সময় পারুলের চোখ গড়িয়ে শুধু পানি পড়ছিল।

সাজিদা ইসলাম পারুল বলেন, এক মাস পনের দিন হয়েছে রেজাউল করিম প্লাবনের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন আইনে মামলা করেছেন। বিচার চেয়ে কত ধরনা দিচ্ছেন। প্লাবন ঢাকা শহরেই ঘুরে বেড়াচ্ছে, অথচ পুলিশ নাকি তাকে খুঁজে পায় না!

তিনি সাংবাদিক নেতাদের কাছেও বিচার পেতে সহায়তার অনুরোধ করেন। বলেন, ‘আমি আপনাদের ছোটবোনের মতো। আমার জায়গায় নিজের বোনটিকে ভাবুন, কন্যাটিকে ভাবুন। যদি আপনার বোন বা মেয়ে যৌতুকের জন্য নির্যাতিত হতো, তার গর্ভের অনাগত সন্তানটিকে হত্যা করা হতো, কী করতেন আপনি?

পারুল বলেন, ‘কতিপয় সাংবাদিক নেতার প্রশ্রয় এবং পুলিশ প্রশাসনের অবহেলা কাজে লাগাচ্ছে প্লাবন। প্রতিনিয়ত সমঝোতার চাপ, হুমকি, ফেসবুক আইডি হ্যাক করার চেষ্টা করে যাচ্ছে। একদিন দেখবেন, পুরো আমাকেই গায়েব করে দেবে সে। তাই উপায়ান্তর না দেখে ন্যায়বিচারের দাবিতে আজ একাই জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে দাঁড়ালাম। আশা করছি পুলিশের টনক নড়বে।’

তিনি জানান, এরপরও বিচার না পেলে প্লাবনকে গ্রেপ্তারের দাবিতে হাতিরঝিল থানার সামনে দাঁড়াবেন। প্রয়োজনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাড়ির সামনে এবং প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের কাছেও বিচার চাইতে দাঁড়াবেন। তাতেও কাজ না হলে আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করবেন তিনি। বিচারহীনতার এই সমাজে বেঁচে থাকার চেয়ে প্রতিবাদ করে মরে যাওয়া ভালো।

এসময় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে পারুল বলেন, ‘প্রশাসন আমাকে হেল্প করতে চায় না। তাই আমি প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি। প্রধানমন্ত্রী একজন মায়ের মতো। অন্তত তিনি যেন আমার দুঃখটা বোঝেন। আমি চাই, প্লাবনকে দ্রুত গ্রেফতার করা হোক। সে আমাকে কখন মেরে ফেলবে, এটাও বলা যাচ্ছে না। আমি নিজে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। আশাকরি, তার অফিস যুগান্তর থেকেও যেন ব্যবস্থা নেওয়া হয়। এমন মানুষ সাংবাদিকতায় থাকতে পারে না।’

এর আগে ১১ মে হাতিরঝিল থানায় দৈনিক যুগান্তরের স্টাফ রিপোর্টার রেজাউল করিম প্লাবনের বিরুদ্ধে যৌতুক দাবি, শারীরিক নির্যাতন ও ভ্রুণ হত্যার অভিযোগে মামলা করেন তার স্ত্রী পারুল আক্তার। প্রেমের সম্পর্ক থেকে এ বছর ২ এপ্রিল তারা বিয়ে করেন।