• আজ শুক্রবার, ২ আশ্বিন, ১৪২৮ ৷ ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ৷

একাত্তরের পর এখন মানুষের এত ভালোবাসা পাচ্ছি : ডা. জাফরুল্লাহ


❏ বৃহস্পতিবার, জুন ২৫, ২০২০ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ‘আপনারা যে এতজনে দোয়া করেছেন, তা অকল্পনীয়। মানুষ যে এত ভালোবাসতে পারে, একাত্তরের যুদ্ধে পেয়েছিলাম ভালোবাসা, আর এখন পাচ্ছি।’

বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর ধানমন্ডির গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালের গেরিলা কমান্ডার মেজর এ টি এম হায়দার বীর উত্তম মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন ডা. জাফরুল্লাহ। সভায় তিনি খুবই অল্প সময় কথা বলেন।

আলোচনার শুরুতে সঞ্চালক বলেন, আপনাদের সাথে সরাসরি কথা বলতে ডা. জাফরুল্লাহর একটু সমস্যা হবে। যতটা কম কথা বলা যায়, সেটাই হলো মূল লক্ষ্য।

এসময় ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, করোনার সংকটে স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে। সরকার অন্ধকার ঘরে কালো বিড়াল খুঁজছে। করোনা চিকিৎসায় সরকারের পদক্ষেপ যথাযথ নয় বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি জানান, তার করোনা চিকিৎসায় সাড়ে ৩ লাখ টাকা খরচ হয়েছে। ৮২ হাজার লিটার অক্সিজেন কনজ্যুইম করেন তিনি। তার ফুসফুসে ৮০ ভাগ নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছিলো।

গত ২৫ মে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়। প্রথমে গণস্বাস্থ্যের র‌্যাপিড ডট ব্লট কিটের পরীক্ষায় তার করোনা শনাক্ত হয়। এরপর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) পরীক্ষাতেও একই ফলাফল আসে।

দীর্ঘসময় চিকিৎসা গ্রহণের পর ১৩ জুন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর শরীরে গণস্বাস্থ্যের কিট দিয়ে পরীক্ষা করা হলে এন্টিজেন রিপোর্ট নেগেটিভ এবং এন্টিবডি রিপোর্ট পজিটিভ পাওয়া যায়। এরপর আরটি-পিসিআর পরীক্ষাতেও তার করোনা নেগেটিভ আসে।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বর্তমানে ওনার নিজের স্থাপিত প্রতিষ্ঠান গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে অধ্যাপক ডা. ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মামুন মোস্তাফিজ এবং অধ্যাপক ডা. নাজিব মোহাম্মদের তত্ত্বাবধানে সার্বক্ষণিক চিকিৎসাধীন।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন