সংবাদ শিরোনাম
বরিশালে বেড়েছে অত্মহত্যার প্রবণতা | ধর্ষকের ‘বিশেষ অঙ্গ’ কেটে নিজের সম্ভ্রম বাঁচালেন গৃহবধূ | বরিশালে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ম্যুরাল উদ্বোধন | শেখ হাসিনার জন্মদিনে ১ হাজার এতিমের মাঝে খাবার ও নগদ টাকা উপহার | সিলেটে গণধর্ষণ: অভিযুক্তদের পক্ষে দাঁড়াননি কোনো আইনজীবী | শেরপুরে আ.লীগ নেতার বাসায় নির্যাতিত গৃহকর্মীর পাশে উপজেলা প্রশাসন | গৃহবধূ গণধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষকদের ফাঁসির দাবিতে আদালত প্রাঙ্গণে স্লোগান | এমসি কলেজে গণধর্ষণ: আসামিদের পক্ষে দাঁড়াননি কোনো আইনজীবী | করোনায় জাতীয় পার্টির সাবেক এমপি শামসুল হকের মৃত্যু | শেখ হাসিনাকে জন্মদিনের উপহার পাঠালেন মমতা ব্যানার্জি |
  • আজ ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

অষ্টম মহাদেশ জিলান্ডিয়া’র সম্ভাব্য মানচিত্র সামনে আনলেন বিজ্ঞানীরা

৯:৪৮ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, জুন ২৮, ২০২০ জানা-অজানা
zela

জানা-অজানা ডেস্কঃ ছোটবেলা থেকে আমরা ভূগোল বইতে পড়েছি যে পৃথিবীতে মহাদেশের সংখ্যা সাত। এই তথ্য প্রায় সকলেরই জানা। কিন্তু এবার সেই তথ্য বদলে যেতে পারে। বিজ্ঞানীরা অষ্টম মহাদেশের অস্তিত্বের কথা বলছেন। সেই দাবি অবশ্য নতুন নয়। তবে এই প্রথমবার অষ্টম মহাদেশের সম্ভাব্য মানচিত্র সামনে আনলেন বিজ্ঞানীরা।

নতুন এই সম্ভাব্য মহাদেশের নাম জিলান্ডিয়া। ১৯৯৫ সাল থেকেই এই জিলান্ডিয়া মহাদেশ নিয়ে গবেষণা করে আসছেন বিজ্ঞানীরা। তিন বছর আগে ২০১৭ সালে সেই গবেষণা সম্পূর্ণ হয়। এবার সমুদ্রের অতলে লুকিয়ে থাকা অষ্টম মহাদেশের নানা তথ্য সামনে এসেছে।

নিউজিল্যান্ডের বিজ্ঞানীরা এর সম্ভব্য মানচিত্রও তৈরি করে ফেলেছেন। নিউজিল্যান্ডের গবেষণা প্রতিষ্ঠান জিএনএস সায়েন্স এই বিষয়টি নিয়ে কাজ করছে। জিএনএস সায়েন্স সংস্থা অষ্টম মহাদেশের মানচিত্রটি সামনে তুলে ধরে এনেছেন।

অষ্টম মহাদেশ জিলান্ডিয়া অস্ট্রেলিয়ার পূর্বে নিউজিল্যান্ডের ঠিক উত্তরে। বিজ্ঞানীদের দাবি অনুসারে, এই মহাদেশ প্রায় আড়াই কোটি বছর আগে সমুদ্রে ডুবে যায়। মানচিত্র দেখে বোঝা যায়, অষ্টম মহাদেশ জিলান্ডিয়ার মাঝের একটি ছোট অংশই শুধু ডুবে যায়নি। আর ওই জেগে থাকা অংশই এখনকার নিউজিল্যান্ড দেশ।

এখন পর্যন্ত জিলান্ডিয়া সম্পর্কে যে যে তথ্য সামনে এসেছে, তা দিয়ে অষ্টম মহাদেশের অবস্থান সম্পর্কে জানতে এর টেকটোনিক ও ব্যাথিমেট্রিক নকশা প্রস্তুত করেছেন নিউজিল্যান্ডের বিজ্ঞানীরা। তাদের অনুমান, সেই মহাদেশের আয়তন ছিল ৫০ লাখ বর্গকিলোমিটারের মতো।

প্রশান্ত মহাসাগরে প্রায় তিন হাজার ৮০০ ফুট গভীরে তলিয়ে গেছে এই মহাদেশ। যদিও লর্ড হাউ রাইজে বলস পিরামিড নামে ওই মহাদেশের একটি পাহাড় সমুদ্রের ওপরে বেরিয়ে রয়েছে। এ থেকেই অনুমান করা যায় যে সমুদ্রের ভেতরে একটা বড় ভূখণ্ড ডুবে রয়েছে। সেটাই অষ্টম মহাদেশ জিলান্ডিয়া’র সম্ভাব্য মানচিত্র!

সূত্র: দ্য ওয়াল।