সংবাদ শিরোনাম
মানিকগঞ্জে সাংবাদিকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে সহকর্মীদের মানববন্ধন | সন্তানকে বিক্রি করে দিলেন বাবা: ইউরিয়া খেয়ে মায়ের আত্মহত্যার চেষ্ঠা! | আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর রোগমুক্তি কামনায় দোয়া-মোনাজাত | লাশের মিছিল বেড়েই চলেছে, তবুও আলোচনায় নারাজ আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান | বাংলাদেশের সাথে বন্ধ থাকা স্থলবন্দর খুলে দিতে ভারতকে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর অনুরোধ | কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ’র মৃত্যুতে দেশে একদিনের রাষ্ট্রীয় শোক | ইয়াবা দিয়ে ‘ফাঁসাতে’ গিয়ে নিজেই ফেঁসে গেলেন এএসআই | কাল হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাচ্ছেন ইউএনও ওয়াহিদা | খালেদার যুক্তরাজ্যে যাওয়ার ব্যবস্থা করতে চান ডিকসন | আবারো দলকে ঐক্যবদ্ধ হবার আহ্বান মেসির |
  • আজ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সরকারের অবহেলায় স্বাস্থ্য খাত ভেঙে পড়েছে: ফখরুল

২:৫৭ অপরাহ্ণ | রবিবার, জুন ২৮, ২০২০ জাতীয়
fok

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ সরকারের উদাসীনতা ও অবহেলায় স্বাস্থ্য খাত একেবারেই ভেঙে পড়েছে উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা একেবারেই লেজেগোবরে অবস্থা হয়ে গেছে। আমারা বরাবরই বলে আসছি সরকার স্বাস্থ্যখাতে চরম অবহেলার জন্য আজ বাংলাদেশে করুণ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এখানে কারো কোন নিয়ন্ত্রণ নেই। দেশে যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আছেন তারা একেক সময় একেক কথা বলছেন।

রোববার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয়তাবাদী হোমিওপ্যাথিক দলের উদ্যোগে ‘করোনাভাইরাস প্রতিষেধক ওষুধ বিতরণ’ কর্মসূচি উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর গাইডলাইনও দিতে পারে নাই। গোটা বাংলাদেশে কোভিড-১৯ মোকাবিলা করার মতো কোনো রোড ম্যাপ বা পরিকল্পনার সবটাই অনুপস্থিত এথানে। কয়েকদিন আগে চীনা বিশেষজ্ঞরা এসে ঠিক একই কথা বলেছেন যে, বাংলাদেশে সব কিছু এলোমেলো। এখানে কোথায় রোগ আছে সেটাই খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। অর্থাৎ তারা (সরকার) চিহ্নিত করতে পারছেন না এবং সেটাকে চিহ্নিত করবার জন্য কোনো ব্যবস্থা তাদের নেই।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজকের দুর্ভাগ্যের কথা আমাদের সরকার প্রথম থেকেই এই বৈশ্বিক মহামারীকে উপেক্ষা করেছেন, অবহেলা করেছেন। এটির পেছনে তাদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য ছিল। পরে এটি যখন একটি মহামারী আকারে সমগ্র বিশ্বে ছড়িয়ে পড়া শুরু করেছে, তখন বাংলাদেশে এটি নিয়ে কিছুটা কথা বলা শুরু করেছে, কাজ করেছে।

‘সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে এই মুহুত্বে কোথাও অক্সিজেন পাওয়া যাচ্ছে না। এমনকি হাসপাতালগুলোতেও অক্সিজেন নেই। আর হাসপাতালে যে বেডগুলো করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেয়ার জন্য রাখা হয়েছে। সেই বেডগুলো নাকি খালি পরে আছে। কারণ মানুষ হাসপাতালে যেতে চাচ্ছে না, হাসপাতালের যে ব্যবস্থা তাতে কেউ আস্থা রাখতে পারছে না। বেশিরভাগ মানুষই ঘরের মধ্যে চিকিৎসা নিচ্ছেন। আবার অনেকেই ঘরের মধ্যেই মারা যাচ্ছেন’-যোগ করেন ফখরুল।

তিনি বলেন, দেশের এই সময়েও দুর্নীতিতে ছেয়ে গেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। আমাদের এই জাতির দুর্ভাগ্য যে এমন একটা সরকার এই দেশ শাসন করছে, যারা কোনো নির্বাচিত সরকার নয়। যাদের কোনো জবাবদিহি করতে হয় না।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী হোমিও প্যাথিক চিকিৎসক দলকে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় এগিয়ে আসার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজকে জাতীয়তাবাদী হোমিওপ্যাথি দল বাংলাদেশের মানুষকে চিকিৎসা দেয়ার জন্য যে এগিয়ে এসেছে, আমার তাদের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানাই এবং তাদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। দেশের সব রাজনৈতিক দল, সব সংস্থাকে এগিয়ে এসে করোনা মোকাবেলায় কাজ করার আহ্বান জানাচ্ছি।

চিকিৎসক দলের সভাপতি ডা. আরিফুর রহমান মোল্লার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ডা. শফিকুল আলম নাদিমের পরিচালরায় সহসভাপতি মশিউজ্জামান পান্নু, মজিবুল্লাহ মুজিব, সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম জাকির হোসেন ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গাজী নিজাম উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।