সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

জবিতে সাংস্কৃতিক সংগঠনের জায়গায় মেডিকেল সেন্টারের পরিকল্পনা

১১:২৮ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, জুলাই ৪, ২০২০ শিক্ষাঙ্গন

জবি প্রতিনিধি- বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের জন্য একাডেমিক পড়াশোনার পাশাপাশি নানা সামাজিক ক্রীয়াশীল ও সাংস্কৃতিক সংগঠন সমূহের সাথে যুক্ত থেকে সহশিক্ষায় অংশ নিয়ে নিজেদের নানা প্রতিভার বিকাশ ঘটানো অন্তত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

অন্যদিকে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টার ও কার্যকরী ভূমিকা পালন করে থাকে। কিন্তু মেডিকেল সেন্টারের সম্প্রসারণের নামে কার্যত সামাজিক ক্রীয়াশীল ও সাংস্কৃতিক সংগঠন গুলোর অফিস বন্ধ করে দিচ্ছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) প্রশাসন!

বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের এক অনলাইন সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সম্প্রতি করোনা ভাইরাসের ফলে শিক্ষার্থীদের বাসা ভাড়া সংকট নিরসন ও চিকিৎসাসেবার মান বৃদ্ধির জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের ৫ দফা দাবির পরেই এ সিদ্ধান্ত নেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এইদিকে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে রেজিস্ট্রেশনকৃত ক্রিয়াশীল ১৯টি সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন আছে। এরমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাশ ভবনের ২য় তলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রসংসদ, রোভার স্কাউট, রেঞ্জার ইউনিট,বিশ্ববিদ্যালয়ের রিপোর্টাস ইউনিটি এর অফিস কক্ষ, ৩য় তলায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (জবিসাস), ডিবেটিং সোসাইটি, বিএনসিসি, চলচিত্র সমিতি, ফটোগ্রাফিক সোসাইটি, ৪র্থ তলায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, আবৃত্তি সংসদ, উদিচী ও প্রেসক্লাবের অফিস কক্ষ রয়েছে।

এছাড়াও নতুন করে রেজিস্ট্রেশনকৃত কিছু সংগঠনের কোন অফিস কক্ষ নেই। যাদের অফিসকক্ষ আছে সেগুলোর জায়গা ছোট হওয়ায় সাংগঠনিক কার্যক্রম চালাতে নানা প্রতিকূলতার মুখে পড়তে হয়। এর মাঝেই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সিদ্ধান্তে ২০১৯ সালে অবকাশ ভবনের ৪র্থ তলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের অফিস কক্ষ ভাগ করে সেখানে সাংবাদিকদের আরেকটি সংগঠন প্রেসক্লাবকে জায়গা দেয়া হয়। তখন এ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক কেন্দ্র বিরোধিতা করলেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এটি আমলে নেয়নি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্টার প্রকৌশলী মোঃ ওহিদুজ্জামান বলেন, আমাদের স্বাস্থ্য সেবার মেডিকেল সেন্টারটি অনেক ছোট তাই মেডিকেল সেন্টারটি সম্প্রসারিত করার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাশ ভবনের ২য় ও ৩য় তলার সামাজিক ও ক্রিয়াশীল সংগঠন সমূহের অফিস কক্ষ সরিয়ে এখানে মেডিকেল সেন্টারটি সম্প্রসারিত করা হবে।

এখানে মেডিকেল সেন্টার করা হলে, ক্রিয়াশীল সংগঠন সমূহের অফিস কক্ষ কোথায় যাবে এ প্রশ্নে তিনি বলেন, এখন যেহেতু ক্যাম্পাস বন্ধ সংগঠনসমুহের কার্যক্রম নাই তাই এখানে মেডিকেল সেন্টার করা হবে। আর সংগঠনসমূহের অফিস কক্ষ কোথায় হবে এটা নিয়ে উপাচার্য স্যারের একটা পরিকল্পনা আছে উনি ভাল বলতে পারবেন।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়েল উপাচার্যের সাথে ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

Skip to toolbar