সংবাদ শিরোনাম

মুসলিম হওয়ায় বিতাড়িত করেছিলেন ট্রাম্প, আবার ফিরলেন হোয়াইট হাউসেশনিবারের পর ওবায়দুল কাদেরের প্রতি আর শ্রদ্ধা থাকবে না: কাদের মির্জারংপুরে আল্লাহর গুণবাচক নামের দৃষ্টিনন্দন স্তম্ভ হচ্ছেমহানবীর (সা.) ১৪০০ বছর আগের যে বাণী সত্য প্রমাণ পেল বিজ্ঞানজামালপুরে ট্রাক চাপায় প্রাণ গেল বৃদ্ধারকালীগঞ্জে জন্ম নিবন্ধন কার্ড বিতরণে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগবাইডেন প্রশাসনে বিএনপি নেতা ড. মঈন খানের ভাগ্নি!প্রধানমন্ত্রীর পা ধরে হলেও আপনাদের প্রত্যাশা পূরণ করব : নানকহবিগঞ্জে স্কুলছাত্রকে হত্যা করে ফোনে অভিভাবকের কাছে চাঁদা দাবি, আটক ৩গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় সবজি ব্যবসায়ী নিহত

  • আজ ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রাশিয়াকে টপকে করোনা সংক্রমণে বিশ্বে তৃতীয় ভারত

◷ ১:২০ অপরাহ্ন ৷ সোমবার, জুলাই ৬, ২০২০ আন্তর্জাতিক
Corona

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ বিশ্বে যেসব দেশে করোনা ভাইরাসে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমাগত বাড়ছে তার মধ্যে ভারত অন্যতম। এবার করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যার দিক দিয়ে এবার রাশিয়াকেও ছাড়িয়ে গেছে ভারত। শীর্ষ আক্রান্তের তালিকায় ভারতের অবস্থান এখন তৃতীয়।

রোববার ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৪ হাজার ২৪৮ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হওয়ার কথা জানানোর পর দেশটিতে মোট সংক্রমণের সংখ্যা দাঁড়ায় ছয় লাখ ৯৭ হাজার ৪১৩ জন।

শনাক্ত কোভিড-১৯ রোগীর নতুন এ সংখ্যা নিয়ে ভারত বিশ্বের সবচেয়ে সংক্রমিত দেশগুলোর মধ্যে তিনে উঠে আসে। শনাক্ত ছয় লাখ ৮০ হাজার ২৮৩ জন আক্রান্ত নিয়ে চারে নেমে যায় রাশিয়া।

৩০ জানুয়ারি কেরালায় প্রথম আক্রান্ত শনাক্ত হওয়ার পর ভারতে ১১০ দিনে এক লাখ কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছিল। মার্চের শেষে ভারতজুড়ে দেওয়া কঠোর লকডাউনের কারণে দেশটিতে মে মাসের মাঝামাঝি পর্যন্ত জনসংখ্যা অনুপাতে রোগী মিলছিল সামান্যই। কিন্তু লকডাউন শিথিলের পর থেকে পরিস্থিতি পুরোপুরি পাল্টে যায়।

শনাক্ত রোগী এক থেকে দুই লাখে পৌঁছায় মাত্র ১৫ দিনে। দুই থেকে তিন লাখে ১০ দিনে, তিন থেকে চার লাখে ৮ দিনে, চার থেকে পাঁচ লাখে পৌঁছাতে লাগে ছয় দিন। শেষ এক লাখ যোগ হতে লেগেছে আরও কম সময়, মাত্র ৫ দিন।

গত বুধবার ছয় লাখের ঘর পার হওয়ার পর দেশটিতে শনাক্ত কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা এখন সাত লাখ ছুঁইছুঁই করছে। আক্রান্তের বিশ্বব্যাপী তালিকায় এখন ভারতের উপরে আছে শুধু যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিল।

এদিকে করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় এদিন দিল্লিতে বিশ্বের সবচেয়ে বড় করোনা হাসপাতাল গড়েছে কেন্দ্র। সর্দার প্যাটেল কোভিড কেয়ার সেন্টার অ্যান্ড হসপিটাল লম্বায় ১৭০০ ফুট এবং চওড়ায় ৭০০ ফুট। অন্তত ১০ হাজার রোগীকে ভর্তি করা যাবে ওই হাসপাতালে। এক হাজার রোগীকে অক্সিজেন দেয়া যাবে। রয়েছে ২৫০ বেডের আইসিইউ ইউনিট। আপাতত উপসর্গহীন করোনা রোগীদের চিকিৎসা করা হবে এই হাসপাতালে।

উল্লেখ্য বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যায় শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত ২৮ লাখ ছাড়িয়েছে, মৃত্যু ১ লাখ ২৯ হাজারের বেশি জন। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে আক্রান্ত ১৬ লাখ।