পিপিই পরে সোনা লুট, হতভম্ব পুলিশ!

ppe
❏ বুধবার, জুলাই ৮, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ করোনা সংক্রমণ থেকে সুরক্ষিত থাকতে স্বাস্থ্যকর্মীরা পিপিই পরছেন। তাই বলে পিপিই পরে ডাকাতি! এমনই কাণ্ড ঘটেছে ভারতের মহারাষ্ট্রের গয়নার দোকানে। তবে, তারা যে করোনা সুরক্ষার কথা ভেবে পিপিই পরেননি, তা বলাই বাহুল্য।

ভারতের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, কয়েকদিন আগে মহারাষ্ট্রের সাতারা জেলায় একটি গয়নার দোকানের দেওয়াল ভেঙে প্রায় ৭৮০ গ্রাম সোনার গয়না লুঠ করে পালিয়ে যায় ডকাতের দল। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছান পুলিশকর্মীরা।

পুলিশ তদন্তের জন্য গয়নার দোকান থেকে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছে। চোররা শো-কেস এবং আলমারি থেকে কিছু সোনার গয়না চুরি করে নিয়ে গেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

করোনাকালে লকডাউন চলাকালে দুই দিনের পুরনো এ ঘটনার ফুটেজে দেখা গেছে চোরের টুপি, মুখোশ, প্লাস্টিকের জ্যাকেট এবং হাতে গ্লাভস পরে শোকেস থেকে গয়নাগুলি চুরি করছে।

পুলিশ আরও জানায়, গয়নার দোকান মালিকের অভিযোগের পরে স্থানীয় থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। মালিকের অভিযোগ যে চোরেরা ৭৮ ‘তোলা’ সোনা নিয়ে গেছে।

দোকানের মালিক জানান, চোরেরা দোকানের দেয়াল ভেঙেই ভেতরে ঢোকে।

তদন্তকারীদের ধারণা, এই সময়ে মহারাষ্ট্রের রাস্তাঘাটে পিপিই কিট পরে রাতে একদল লোক গেলেও কেউ সন্দেহ করবে না। পুলিশকর্মীদেরও খটকা লাগবে না। সেই সঙ্গে সিসিটিভিতে কিছু বোঝাও যাবে না। তাই দেখেই এমন ফন্দি এঁটেছে ডাকাতের দল। তারপর ডাকাতি করে নিয়ে যায় সোনার গয়না।

সুত্রঃ জি২৪ ঘণ্টা