উখিয়ায় বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তিন রোহিঙ্গা মাদক ব্যবসায়ী নিহত


❏ বৃহস্পতিবার, জুলাই ৯, ২০২০ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

সময়ের কণ্ঠস্বর, চট্রগ্রাম- কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তিন রোহিঙ্গা মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়নের তুলাতলী জলিলের ঘোনা ব্রিজের পাশে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন-বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তুমব্রু কোনারপাড়া জিরোপয়েন্টে অবস্থানরত রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নূর আলম (৪৫), উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প-১ এর জি/২৯ ব্লকের গোরা মিয়ার ছেলে মো. হামিদ (২৫) ও কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের-২ এর ডি-৪ ব্লকের সৈয়দ হোসেনের ছেলে নাজির হোসেন (২৫)।

বিজিবি জানিয়েছে, বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় বিজিবির দুই সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিজিবি ৩৪ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ জানান, মিয়ানমার থেকে ইয়াবার চালান বাংলাদেশে আসতে পারে এমন খবর পেয়ে বিজিবি গোদা ব্রিজ এলাকায় অবস্থান নেয়। একপর্যায়ে মিয়ানমারের দিক থেকে ৮-১০ জনের একদল লোক পাহাড়ি এলাকা দিয়ে আসে। বিজিবি তাদের থামার নির্দেশ দেয়।

“তারা না থেমে বিজিবি সদস্যদের লক্ষ করে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়তে শুরু করে। বিজিবির সদস্যরা আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়লে তারা অনেকে পালিয়ে যায়। গোলাগুলি থামার পর ঘটনাস্থল থেকে তিনজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠালে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।”

হাসপাতালে নেওয়ার পথে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, তিনজনই স্বীকার করেছেন তারা দীর্ঘদিন ধরে সীমান্তে ইয়াবা পাচারের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। ঘটনাস্থলের আশপাশে তল্লাশি করে তিন লাখ ইয়াবা, দুটি বন্দুক ও পাঁচটি গুলি পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় দুইজন বিজিবির সদস্য আহত হয়েছে বলে তিনি জানান। তিন লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে বলেও তিনি জানান।