• আজ বৃহস্পতিবার, ১০ আষাঢ়, ১৪২৮ ৷ ২৪ জুন, ২০২১ ৷

পাপলুকে নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য ভুলভাবে প্রকাশিত হয়েছে: মন্ত্রণালয়


❏ বৃহস্পতিবার, জুলাই ৯, ২০২০ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- লক্ষীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ শহিদ ইসলাম পাপুলর কুয়েতের নাগরিকত্ব নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেনের বক্তব্য কয়েকটি পত্রিকায় ভুলভাবে প্রকাশিত হয়েছে বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বৃহস্পতিবার (০৯ জুলাই) মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘কয়েকটি পত্রিকায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেনের বক্তব্য ভুলভাবে প্রকাশিত হয়েছে।’

প্রকাশিত সংবাদে উল্লেখ করা হয়েছে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী গণমাধ্যমকে বলেছেন যে পাপুল কুয়েতের নাগরিক। তবে, মন্ত্রণালয় জানিয়েছে যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাক্ষাৎকারে পাপলুকে কুয়েতের নাগরিক হিসেবে উল্লেখ করেননি।

তিনি বলেছেন, ‘মোহাম্মদ শহিদ ইসলাম বাংলাদেশ সরকারের কোনো ডিপ্লোমেটিক পাসপোর্ট নিয়ে কুয়েতে যাননি এবং তিনি প্রায় ২৯-৩০ বছর কুয়েতে ব্যবসায় নিয়োজিত আছেন। তার হয়তো কুয়েতের রেসিডেন্ট পারমিট আছে।’

সাধারণ শ্রমিক হিসাবে কুয়েত গিয়ে বিশাল সাম্রাজ্য গড়া পাপুল ২০১৮ সালে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। শুধু তাই নয়, নিজের স্ত্রী সেলিনা ইসলামকেও সংরক্ষিত আসনে সংসদ সদস্য করে আনেন তিনি।

মারাফি কুয়েতিয়া কোম্পানির অন্যতম মালিক পাপুলকে গত ৬ জুন রাতে কুয়েতের মুশরিফ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পাচারের শিকার পাঁচ বাংলাদেশির অভিযোগের ভিত্তিতে মানবপাচার, অর্থপাচার ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের শোষণের অভিযোগ আনা হয় তার বিরুদ্ধে।

প্রবাসী উদ্যোক্তাদের প্রতিষ্ঠিত এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকেও পাপুলের বড় অঙ্কের শেয়ার রয়েছে। কুয়েতে গ্রেপ্তার হওয়ার পর তাকে ওই ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যানের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়।

পাপুল ও তার কোম্পানির ব্যাংক হিসাব ইতোমধ্যে জব্দ করেছে কুয়েত কর্তৃপক্ষ। বাংলাদেশেও তার বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ।