উইঘুর মুসলিম নির্যাতন: চীনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থায় যুক্তরাষ্ট্র

chaina
❏ শুক্রবার, জুলাই ১০, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ উইঘুর মুসলিমদের ওপর নির্যাতন এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে চীনের শক্তিশালী পলিটব্যুরোর এক সদস্যসহ দেশটির চার কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ফলে, বেইজিং-ওয়াশিংটন সম্পর্ক আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

নিষেধাজ্ঞায় পড়া চারজন হলেন, জিনজিয়াংয়ের কমিউনিস্ট পার্টির সেক্রেটারি ও কেন্দ্রীয় পলিটব্যুরো সদস্য চেন কোয়াঙ্গু, জিনজিয়াংয়ের রাজনৈতিক ও আইনি কমিটির (এক্সপিএলসি) সেক্রেটারি ঝু হাইলুন, জিনজিয়াং পাবলিক সিকিউরিটি ব্যুরোর (এক্সপিএসবি) বর্তমান পার্টির সেক্রেটারি ওয়াং মিংশান এবং সাবেক পার্টি সেক্রেটারি হুয়ো লিউজুন।

বৃহস্পতিবার (০৯ জুলাই) তাদের ওপরে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এরমধ্যে পলিটব্যুরোর সদস্য চেনের বিরুদ্ধে উইগুরসহ অন্যান্য জাতিগত সংখ্যালঘুদের ওপর নজরদারি, বন্দি করা, জোর করে ধর্ম পরিবর্তনের মতো গুরুতর অভিযোগ আনা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের দাবি, চীনের জিনজিয়াং প্রদেশে ১০ লাখেরও বেশি মুসলিমকে ক্যাম্পে আটকে রেখে নির্যাতন করা হচ্ছে। তবে বরাবরই এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে বেইজিং।

এ বিষয়ে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, চীনে পরিকল্পনা করে ভয়াবহ অত্যাচার চালানো হয়েছে একটি সম্প্রদায়ের ওপর। যুক্তরাষ্ট্র তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বলছে, যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে, ওই ব্যক্তিদের সঙ্গে কোনো রকম আর্থিক লেনদেন অপরাধ বলে চিহ্নিত হবে। শুধু তা-ই নয়, যুক্তরাষ্ট্রে তাদের কোনো সম্পত্তি থাকলে, তা আপাতত ফ্রিজ থাকবে। এছাড়া এই চারজনের বাইরেও শিনজিয়াংয়ের বেশ কিছু কমিউনিস্ট নেতাকে ভিসা দেওয়া হবে না বলে মার্কিন সূত্র জানাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার চার কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে এখনও কোনও মন্তব্য করেনি চীন সরকার।