কোটালীপাড়ায় স্বামী হত্যার বিচার দাবিতে স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন

৮:৫৯ অপরাহ্ণ | রবিবার, জুলাই ১২, ২০২০ ঢাকা
Gopalgonj

মেহেদী হাসনাত,  গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় ব্যবসায়ী নিউটন বাড়ৈ বাবু হত্যার বিচার দাবিতে তার স্ত্রী সুপ্রিয়া মজুমদার সংবাদ ম সম্মেলন করেছে।

আজ রবিবার (১২জুলাই) কোটালীপাড়া রিপোর্টাস ক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে সুপ্রিয়া মজুমদার লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন।

তিনি বলেন, আমার স্বামী একজন নিরহ প্রকৃতির মানুষ ছিলেন। তিনি ব্যবসা করে সংসার চালাতেন। গত ৭ মে আমার স্বামী ভেকু মেশিন নিয়ে রাজৈর গ্রামের কুদ্দুস মিয়ার ঘের কাটতে যাওয়ার সময় বৈকন্ঠপুর গ্রামের যোগেশ কির্তনীয়া, উত্তম কির্তনীয়া, কমলেশ বাগচী, বিনয় বাগচী ও কপিল বাগচী আমার স্বামীকে পিটিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় আমি বাদী হয়ে কোটালীপাড়া থানায় ৫জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করি। মামলা নং-৫৩/২০২০। আমার মামলা দায়েরের প্রায় আড়াই মাস অতিবাহিত হলেও অদৃশ্য কারণে পুলিশ আমার স্বামীর হত্যাকারীদের গ্রেফতার করছে না। অপরদিকে আসামী পক্ষ আমাদেরকে মামলা প্রত্যাহারের জন্য প্রতিনিয়ত হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। তারা আমার পুত্র সন্তানকে মেরে ফেলারও হুমকি দিচ্ছে। তাই আমি অবিলম্বে আমার স্বামীর হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তি দাবি করছি।

সুপ্রিয়া মজুমদার তার লিখিত বক্তব্য পাঠ করার সময় আবেগআপ্লুত হয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তার কান্না দেখে উপস্থিত সুপ্রিয়ার স্বজনরাও কেঁদে ফেলেন।

সংবাদ সম্মেলনে নিহত ব্যবসায়ী নিউটন বাড়ৈ বাবুর ছেলে দেবার্ঘ বাড়ৈ, কাকা বাসুদেব বাড়ৈ, তপন কুমার বাড়ৈ, শংকর বাড়ৈ, শাশুড়ী অনিমা মজুমদার উপস্থিত ছিলেন।

মামলার বাদী ও তার পরিবারের সদস্যদের হুমকি প্রদান এবং আসামীদের গ্রেফতারের বিষয়ে তদন্তকারী কর্মকর্তা ভাঙ্গারহাট নৌ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মো: সামিনুল হক বলেন, আমরা আসামী গ্রেফতার করছি না এ কথাটি সত্য নয়। ৫জন আসামীর মধ্যে আমরা যোগেশ কৃর্তনীয়া নামে একজনকে গ্রেফতার করেছি। বাকী আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Skip to toolbar