সংবাদ শিরোনাম

ঠাকুরগাঁওয়ের আলোচিত সেই লিচু গাছ পরিদর্শনে ইউএনও ও কৃষি অফিসারসালথায় তান্ডব: সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান পাঁচ দিনের রিমান্ডেকরোনায় একদিনে আরও ৯৮ জনের মৃত্যুনিউমাকের্ট থেকে হেফাজতের আরও এক নেতা গ্রেফতারমেলান্দহে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, ড্রেজার মেশিনে আগুন দিয়ে ধ্বংসউৎপাদন বাড়াচ্ছি, শিগগিরই বাংলাদেশ টিকা পাবে: দোরাইস্বামীশরীয়তপু‌রে পা‌রিবা‌রিক দ্ব‌ন্দে স্ত্রীর ওপর অভিমান করে স্বামীর আত্মহত্যামাগুরায় কৃষি পণ্য উৎপাদনে জনপ্রিয় হচ্ছে ‘চাঁদের হাট’ সমন্বিত কৃষি খামার প্রকল্পহেফাজতের যুগ্ম-মহাসচিব খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ূবী গ্রেপ্তারকরোনার তৃতীয় ঢেউ নিয়ে সতর্ক করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • আজ বৃহস্পতিবার। গ্রীষ্মকাল, ৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২২শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। সন্ধ্যা ৬:১৬মিঃ

করোনা উপসর্গ নিয়ে বাকৃবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু

⏱ | সোমবার, জুলাই ১৩, ২০২০ 📁 শিক্ষাঙ্গন
bau

হাবিবুর রনি, বাকৃবি প্রতিনিধি: করোনা উপসর্গ নিয়ে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) আব্দুল্লাহ ফাইয়াজ নামের এক শিক্ষার্থীর আকস্মিকভাবে মৃত্যু হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ২য় বর্ষে অধ্যয়নরত ছিলেন ওই শিক্ষার্থী। রবিবার (১৩ জুলাই) দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে ঢাকার ল্যাব এইড হাসপাতালে মারা যান ওই শিক্ষার্থী।

মৃত শিক্ষার্থীর বাবা আখতারুল হক মুঠোফোনে কান্নাজড়িত কন্ঠে জানান, ৪-৫ দিন যাবৎ জ্বর ও ডায়রিয়ায় ভূগছিল আমার ছেলে। প্রথম দিকে স্থানীয় ফার্মেসী থেকে জ্বর ও ডায়রিয়ার ঔষুধ কিনে খাওয়ানো হয় তাকে। এর পরও সুস্থ না হলে তাকে সদর হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা করানো হয়। হাসপাতাল থেকে বিভিন্ন ধরনের টেস্ট করানো হয়। টেস্টে দেখা যায়, তার একটি কিডনি ও দেহের কিছু অঙ্গ ড্যামেজ হয়ে গেছে।

“গতকাল (রবিবার) দিবাগত রাত ২টার দিকে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা করা হয় এবং ল্যাব এইড হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরে রাত সাড়ে তিনটার দিকে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে করোনা উপসর্গ নিয়েই আমার ছেলে মারা গেছে। কিন্তু শুরু থেকেই অতটা গুরুত্ব না দেওয়ার কারণে করোনা টেস্ট করানো হয়নি।”

এদিকে করোনা উপসর্গ থাকলেও কোনো রকম করোনা টেস্ট না করেই একই দিন দুপুর ১২টার দিকে কুমিল্লা জেলার মারকাজ মসজিদে জানাজা ও পরে নিজ এলাকার কবরস্থানে দাফন করা হয় ওই শিক্ষার্থীকে।

ফাইয়াজ বাকৃবির বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হলের আবাসিক ছাত্র ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা জেলার সদর উপজেলায়। তিন ভাই দুই বোনের মধ্যে পরিবারের বড় ছেলে ছিলেন ওই শিক্ষার্থী।