ঠাকুরগাঁওয়ে আবারও টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু, মানা হচ্ছে না শারীরিক দূরত্ব

১২:০৬ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, জুলাই ১৪, ২০২০ দেশের খবর, রংপুর

কামরুল হাসান, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি- করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি নিয়েই ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)’র ট্রাক থেকে পণ্য কিনছেন পৌরশহরের নিম্ন মধ্যবিত্ত আয়ের মানুষ। বারবার সতর্ক করা সত্ত্বেও শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনা মানছেন না তারা।

গতকাল সোমবার (১৩ জুলাই) সন্ধ্যায় ঠাকুরগাঁও সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে টিসিবি’র ট্রাকের পেছনে দীর্ঘ লাইন ও ঠেলাঠেলি করেই সাধারণ মানুষের এমন-ই চিত্র দেখা যায়।

করোনা ভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে অপেক্ষাকৃত গরিবদের মূল ভরসা টিসিবি’র ন্যায্যমূল্যের পণ্য বিক্রয় কেন্দ্র। আর পৌর এলাকায় নিম্ন আয়ের মানুষের সংখ্যা বেশি হওয়ায় টিসিবি’র ভ্রাম্যমাণ বিক্রয় কেন্দ্র ট্রাকের পেছনে ভিড় একটু বেশিই থাকে।

করোনা পরিস্থিতির কারণে পণ্য ক্রয়ের জন্য শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে ও মাস্কসহ অন্যান্য নিরাপত্তা সরঞ্জাম ব্যবহারের নির্দেশনা দেওয়া হলেও তা অধিকাংশই মানছেন না। পণ্য বিক্রেতারা বারবার অনুরোধ করলেও ভিড়ের মধ্যে ঠেলাঠেলি করেই পণ্য ক্রয় করতে দেখা যায়।

ঠাকুরগাঁও সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে ট্রাক থেকে সয়াবিন তেল ও ডাল কিনে ফিরছেন রিকশাচালক সেলিম মিয়া। তিনি জানালেন, এখন আয় কমে যাওয়ায় এই ট্রাক থেকে জিনিস কিনলে একটু সাশ্রয় হয়। তবে ভিড় বেশি হওয়ায় নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে পণ্য কেনা যায় না। আর দীর্ঘ সময় ট্রাকের পিছনে দাড়িয়ে থাকলে আয় আরো কমবে বলে তাকে ঝুঁকি নিতে হচ্ছে।

বিক্রেতা জাফেরুল্লা পলাশ বলেন, সকলকে বারবার বলা হলেও কেউ নির্দেশনা মানতে রাজি নন। এমনকি অনেকে লাইনে দাঁড়াতেও চান না। সকলেই আগে কিনতে চান।  তবে একটা বিষয় কঠোরভাবে মানা হচ্ছে যে “নো মার্কস নো টিসিবি পণ্য”।

তিনি জানান, এই এলাকার টিসিবি’র ডিস্ট্রিবিউটার তিনি নিজে। কোনদিন এই এলাকায় মালামাল গ্রাহকদের দেই আবার কোনদিন মাঠের ওইপাশে মাল দেই। এই একটা ট্রাকে সব মিলে মাল থাকে ১৯৫০ কেজি। এরমধ্যে চিনি ৭৫০ কেজি সোয়ামিন তৈল বসুন্ধরা ও তীর ১২০০ লিটার ডাল ২০০ কেজি। যে যেভাবে নিতে চায় তাকে ঠিক সেভাবেই দেওয়া হয়। পাঁচ লিটার সয়াবিন তেলের ক্যন একটি ও ৩ কেজি চিনি সহ ১ কেজি ডাল মোট মূল্য ৬০০ টাকা মাত্র। যদি কেউ এই প্যাকেজ নিতে না চান শুধু চিনি বা তেল বা ডাল নিতে চান তাও দেওয়া হয়।’

উল্লেখ, টিসিবি’র ট্রাকের পিছনে নানা বয়সী নারী, পুরুষ ও শিশুকে পণ্য কিনতে দেখা যায়। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, সারা দেশে সাড়ে ৩০০ ডিলারের মাধ্যমে সাশ্রয়ী মূল্যে পণ্য বিক্রি করছে টিসিবি।

Skip to toolbar