তানোরে নিজের বিয়ে নিজেই ঠেকালো সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী

৩:১৫ অপরাহ্ন | শুক্রবার, জুলাই ১৭, ২০২০ দেশের খবর, রাজশাহী

অসীম কুমার সরকার, তানোর (রাজশাহী) সংবাদদাতা: রাজশাহীর তানোর পৌর এলাকার আমশো দক্ষিণপাড়ায় নিজের বাল্যবিবাহ ঠেকিয়েছে সপ্তম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী।

বিয়ের আগে বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) তানোর থানা পুলিশকে মোবাইল ফোনে ওই শিক্ষার্থী জানায়, জোর করে তাকে বাল্যবিবাহ দেয়া হচ্ছে বলে কান্নাকাটি শুরু করে।

খবর পেয়ে তানার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাকিবুল হাসানের হস্তক্ষেপে বিয়ে বন্ধ হয়। সাহসী মেয়েটি বেসরকারি অর্কিড স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থী। বৃহস্পতিবার ওই ছাত্রীর বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এখনই বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চায় না ওই স্কুলছাত্রী। সে আরও পড়াশোনা করতে চায়।

এ ব্যাপারে অর্কিড স্কুলএন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো: এরফান আলী সরকার জানান, জোর করে ওই ছাত্রীকে বাল্য বিবাহ দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছিল। ছাত্রীটি খুবই সাহসী। নিজের চেষ্টায় তার বাল্যবিয়ে ঠেকাতে পেরেছে।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে তানোর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাকিবুল হাসান বলেন, ওই স্কুল ছাত্রীর ফোন পাওয়া মাত্র বিয়ে বাড়িতে পুলিশ পাঠানো হয়। খবর পেয়ে বরপক্ষ ও কনে পক্ষের লোকজন পালিয়ে যায়। পরে মেয়ের মার কাছ থেকে বিয়ে দিবে না মর্মে মুচলেখা নেয়া হয়েছে।