• আজ ৪ঠা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

একদিনে র‌্যাবের কাছে সাহেদের বিরুদ্ধে ৯২ অভিযোগ

১০:৪৯ পূর্বাহ্ন | রবিবার, জুলাই ১৯, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- করোনার নমুনা পরীক্ষা নিয়ে ভুয়া রিপোর্ট দেওয়ার মামলায় গ্রেপ্তার রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিমের প্রতারণা ও নির্যাতন নিয়ে অভিযোগ জানানোর জন্য চালু হওয়া হটলাইনে গত ২৪ ঘণ্টায় ৯২টি অভিযোগ এসেছে। এরমধ্যে টেলিফোনে ৭২টি ও বাকিগুলো মেইলে এসেছে।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক আশিক বিল্লাহ শনিবার রাতে বলেন, “আমরা ৯২টি অভিযোগ পেয়েছি। এই ৯২টির মধ্যে ২০টি মেইলে এবং ৭২টি ফোনে।

“আমরা এটাকে হটলাইন বলছি না, হট সেবা বলছি। অভিযোগকারীদের কেউ চিকিৎসার নামে প্রতারিত হয়েছেন, কেউ বালু-পাথর সরবরাহ করতে গিয়ে প্রতারিত হয়েছেন, কাউকে ব্যাংক লোন পাইয়ে দেবে বলে অগ্রিম টাকা নেওয়া হয়েছে।”

তিনি বলেন, রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদ করিমের বিরুদ্ধে প্রতারণার অনেক মামলা রয়েছে। তিনি বিভিন্ন পরিচয় ব্যবহার করে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। অনেকেই অভিযোগ করেননি। তবে সাহেদ গ্রেফতার হওয়ার পর প্রতারণার শিকার অনেক ভুক্তভোগী র‌্যাবের সঙ্গে যোগযোগ করছেন।

আশিক বিল্লাহ আরও বলেন, সাহেদের দ্বারা প্রতারিত হয়ে বিপুল সংখ্যক ভুক্তভোগী র‌্যাবকে তথ্য জানাচ্ছেন। অভিযোগগুলো যাচাই-বাছাই সাপেক্ষে আমরা আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ নেয়া হবে। পাশাপাশি ভুক্তভোগীদের আইনগত সহায়তা দেয়া হবে।

এর আগে শুক্রবার (১৭ জুলাই) বিকেলে সাহেদের কাছে প্রতারিত হয়েছেন বা ভোগান্তির শিকার হয়েছেন এমন ভুক্তভোগীদের যেকোনো তথ্য বা অভিযোগ জানাতে বা আইনি সহায়তা পেতে র‍্যাব যোগাযোগের অনুরোধ জানায়। পাশাপাশি হটলাইন নম্বর চালু করে র‍্যাব।

করোনাভাইরাস পরীক্ষায় জালিয়াতিসহ নানা প্রতারণার অভিযোগে ৬ জুলাই রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালায় র‍্যাব। এরপর আত্মগোপন করেন সাহেদ। গত বুধবার সাতক্ষীরা থেকে সাহেদকে গ্রেপ্তার করা হয়। দশদিনের রিমান্ডে সাহেদ এখন গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) হেফাজতে আছেন।