সংবাদ শিরোনাম

কাদের মির্জার ফেসবুক স্ট্যাটাস নিয়ে তোলপাড়দ্বিতীয় ডোজ নিয়েও করোনায় আক্রান্ত এমপি ফজলে হোসেন বাদশামাদারীপুরে চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ, নিহত ১খালেদার করোনা নিয়ে অপরাজনীতি করতে পারে বিএনপি: কাদেরকাদের ‘মুভমেন্ট পাস’ লাগবে না, জানালো পুলিশ সদর দপ্তরস্বামীর জন্য দরজা খোলা রেখে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূচট্টগ্রামে মৃত্যুহীন দিনে করোনা আক্রান্ত ৩৬৭ জনসারাদেশে ওয়ার্ড কমিটি ও আইনি সহায়তা সেল করবে হেফাজতে ইসলামখসরুর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে বিচারিক কাজ বন্ধকোটালীপাড়ায় ট্রাক-অ্যাম্বু‌লে‌ন্সের সংঘর্ষে ভ্যানচালক নিহত

  • আজ ২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পাকিস্তানী প্রেমিকার জন্য ১২০০ কিমি পাড়ি দিয়ে অজ্ঞান ভারতীয় যুবক

১১:০১ পূর্বাহ্ন | রবিবার, জুলাই ১৯, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- শাহরুখ খান-প্রীতি জিনতার সেই অমর প্রেমকাহিনী মোড়া ‘বীরজারা’র কথা মনে আছে? প্রেমের জন্যে, প্রেমিকাকে আপন করে নিতে পাকিস্তান চলে গিয়েছিলেন ‘বীর’। তারপর ২২ বছর জেল! শেষমেশ অবশ্য শেষ বয়সে একে-অপরকে আপন করতে পেরেছিলেন তারা।

কিন্তু এবার খোঁজ মিলল বাস্তবের এক ‘বীর’-এর। পাকিস্তানি প্রেমিকাকে দেখতে ১২০০ কিলোমিটার পেরিয়ে এসে সীমান্তের কাছে এসে অসুস্থ হয়ে পড়ল সে, নাহলে হয়তো কাঁটাতার টপকেই চলে যেত করাচি!

ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী- বিএসএফ সূত্রে খবর, দীর্ঘ ১২০০ কিলোমিটার পথ পেরিয়ে আসার ক্লান্তিতে গুজরাটের কচ্ছ উপত্যকার কাছে এসে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে মাত্র ২০ বছর বয়সী ওই যুবক। অসুস্থতার মাঝেই তাকে দেখতে পান বিএসএফ জওয়ানরা। তারাই ওই যুবককে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

জানা যায়, আলোচিত যুবক হচ্ছেন সিদ্দিকি মুহাম্মদ জিশান। মহারাষ্ট্রের ওসামাবাদ এলাকার বাসিন্দা ২০ বছরের ওই যুবক। ফেসবুকে পরিচয় হওয়া এক নারীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়ান তিনি, যার বাড়ি পাকিস্তানের বন্দর শহর করাচিতে। ফেসবুক মেসেঞ্জারের বার্তালাপ থেকে খুব সহজেই তা হোয়াটসঅ্যাপে ছড়িয়ে যায়।

এভাবেই ঘুঁচে গিয়েছিল প্রায় ১২০০ কিলোমিটারের দূরত্ব। যদিও সম্পূর্ণটাই হয়েছিল ভার্চুয়াল প্রক্রিয়ায়। সামনে থেকে কেউই কাউকে দেখেননি। সেই দূরত্ব দূর করতেই উদ্যত হয়েছিলেন সিদ্দিকি মুহাম্মদ জিশান। বাইক নিয়েই মহারাষ্ট্রের ওসামাবাদ থেকে ক্রাচির উদ্দেশ্যে রওনা দেন তিনি। ১২০০ কিলোমিটার বাইক চালিয়ে পৌঁছে গিয়েছিলেন পাকিস্তান সীমান্তের বেশ কাছেই।

সেই সময়েই ঘটল বিপত্তি। গুজরাট হয়ে পাকিস্তানে প্রবেশের পরিকল্পনা করেছিলেন ওসামাবাদের যুবক সিদ্দিকি মুহাম্মদ। কচ্ছের রণ এলাকায় পৌঁছেও গিয়েছিলেন। কিন্তু এই গ্রীষ্মে শরীর আর সঙ্গ দেয়নি তার। সীমান্তের কাছেই সংজ্ঞা হারিয়ে ফেলেন সিদ্দিকি মুহাম্মদ জিশান। সেখান থেকেই তাকে উদ্ধার করেন বিএসএফ সদস্যরা। ভর্তি করা হয় স্থানীয় হাসপাতালে। সেখান থেকেই পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয় প্রেমিক সিদ্দিকিকে।