সংবাদ শিরোনাম

খসরুর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে বিচারিক কাজ বন্ধকোটালীপাড়ায় ট্রাক-অ্যাম্বু‌লে‌ন্সের সংঘর্ষে ভ্যানচালক নিহতকরোনায় মারা গেলেন নৌবাহিনীর ক্যাপ্টেন মাসুক হাসানলকডাউনের দ্বিতীয় দিনে সড়কে দীর্ঘ যানজট!৬ বছরের ছেলে সাহেলের প্রথম রোজা, আপ্লুত মাশরাফিকোরআন তেলাওয়াত, ইবাদতে প্রথম রোজা কেটেছে খালেদারভাঙ্গায় রাতের আঁধারে দফায় দফায় সংঘর্ষ, ভাঙচুর-লুটপাট : আহত-১৫বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে তরুণীর সর্বস্ব কেড়ে নেওয়ার অভিযোগ স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধেমহাসড়ক যানশূন্য, শিমুলিয়ায় ফেরি পারাপার বন্ধ‘তালা ভেঙ্গে মসজিদে তারাবি পড়ার চেষ্টা্’‌, পুলিশের বাধায় সংঘর্ষে মুসল্লিরা

  • আজ ২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

এএসআই হত্যা মামলার প্রধান আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

১১:৪৭ পূর্বাহ্ন | সোমবার, জুলাই ২০, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া- ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত আসামির ছুরিকাঘাতে পুলিশের এএসআই নিহত হওয়ার মামলার প্রধান আসামি মামুন র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন।

গতকাল রোববার দিনগত মধ্যরাতে সদর উপজেলার মাছিহাতা ইউনিয়নের চান্দপুর বাজারের পাশে এ ঘটনা ঘটে।

র‌্যাব-১৪, ভৈরব ক্যাম্পের উপপরিচালক চন্দন দেবনা জানান, এএসআই আমির হোসেনকে ছুরিকাঘাতে হত্যা মামলার প্রধান আসামি মামুনকে ধরতে র‌্যাবের একটি দল স্থানীয় চাঁনপুর বাজারে যায়।

এ সময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে মামুন মিয়া ও তার সহযোগীরা গুলি চালায়। এ সময় আত্মরক্ষার্থে র‌্যাব সদস্যরা পাল্টা গুলি চালালে মামুন মিয়া গুলিবিদ্ধ হয়। পরে তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, চার রাউন্ড গুলি ও একটি ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে।

এ সময় র‌্যাব-১৪, ভৈরব ক্যাম্পের ল্যান্স নায়েক পান্নু ও সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) দেলোয়ার আহত হন। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার বিকালে সাদা পোশাকে সদর উপজেলার চান্দপুর ব্রিজের কাছে গ্রেফতারি পরোয়ানাভুক্ত আসামি মামুন মিয়াকে ধরার সময় ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে তিনি ছুরি দিয়ে এএসআই আমির হোসেনের বুকের বাম পাশ ও মাঝখানে আঘাত করে।

এতে এএসআই আমির হোসেন মাটিতে লুটিয়ে পড়লে সহকর্মী মণি শঙ্করসহ স্থানীয়রা তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে সদর থানায় পাঁচজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন। এ ঘটনায় মামুন মিয়ার ছোট ভাই ইসমাইল মিয়াসহ দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।