সংবাদ শিরোনাম

কারওয়ান বাজারে সৌদি প্রবাসীদের বিক্ষোভ-সড়ক অবরোধচট্টগ্রামের বাঁশখালীতে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, গুলিতে ৪ শ্রমিকের মৃত্যুগাছে মোটরসাইকেলে ধাক্কা, ২ ক‌লেজ ছা‌ত্রের মৃত্যুহেফাজতিরা ধর্মকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় আসতে চায়: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রীওবায়দুল কাদেরের বাড়িতে ককটেল হামলাশাহজাদপুরে থানা পুলিশের অভিযানে ইউপি সদস্যসহ ৯ জুয়াড়ি আটকখালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় ফরিদপুরে দোয়াওবায়দুল কাদেরকে কোম্পানীগঞ্জে ঢুকতে না দেওয়ার ঘোষণা কাদের মির্জারকরোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন এমপি ফারুক চৌধুরীর মাফরিদপুরে পূর্ব শত্রুতার জেরে কলেজ শিক্ষার্থীর ওপর হামলা

  • আজ ৪ঠা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

করোনা আক্রান্ত মা যতক্ষণ বাঁচলেন, হাসপাতালের জানালায় ততক্ষণ ছেলে বসেছিলেন !

১২:৪৪ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, জুলাই ২১, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ করোনাভাইরাসের ছোবলে দিশেহারা বিশ্ব। একের পর এক স্বজন হারাচ্ছে মানুষ। ভাইরাসটির সংক্রমণে থাকা রোগী বা মৃত কারো সঙ্গেই দেখা করতে পারছেন না স্বজনেরা।

সৎকার বা দাফন হচ্ছে স্বজন ছাড়া। এর মধ্যে ঘটেছে একটি হৃদয়বিদারক ঘটনা। আইসিইউ-তে করোনা আক্রান্ত মা যতক্ষণ বাঁচলেন, ততক্ষণ হাসপাতালের জানালার পাশে বসেছিল ছেলে। সূত্র : নিউজ ১৮।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ফিলিস্তিনে হৃদয়বিদারক এ ঘটনা ঘটেছে। যার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। মায়ের সঙ্গে দেখা করার কোনো উপায় ছিল না। তাই দূর থেকেই মাকে বিদায় জানালো ছেলে।

ভাইরাল ছবিতে দেখা যায়, হাসপাতালের কয়েকতলা উপরের কাচের জানালার পাশে বসে ভেতরের দিকে তাকিয়ে রয়েছে এক ব্যক্তি। ৩০ বছরের যুবক কেন এমনভাবে হাসপাতালের জানালার পাশে বসে আছেন? সেই খবর নিতেই বেরিয়ে এলো হৃদয়বিদারক তথ্য।

জানা গেছে, ওই যুবকের নাম জিহাদ আল সুয়াইতি। তার মা করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালেই ভর্তি ছিলেন। সরকারি হাসপাতালের ইন্টেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) ভর্তি মাকে দেখতে যাওয়ার অনুমতি স্বাভাবিকভাবে পায়নি ছেলে। তাই জানালার পাশে বসে মায়ের জন্য অপেক্ষা করছিলেন তিনি।

শেষ সময়েও মায়ের কাছ থেকে সরে যেতে চায়নি এ যুবক। জানালা দিয়েই মায়ের মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়া দেখেছে ছেলে। যতদিন মা হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন, ততদিন রাতে ওই জানালার ধারে বসে থাকতেন এ যুবক। মহম্মদ সাফা নামে একজন ছবিটি শেয়ার করে এ ব্যাপারে লিখেছেন।

আগে থেকেই লিউকোমিয়ার রোগী মায়ের শরীরে করোনা সংক্রমণ করে। পরে তাকে পাঁচদিন হাসপাতালে ভর্তি থাকতে হয়েছিল।

যুবক জানান, তার অসহায় লাগতো। তাই হাসপাতালের জানালার পাশে বসে থাকতেন এবং মাকে দেখতেন।