• আজ বৃহস্পতিবার। গ্রীষ্মকাল, ৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২২শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। রাত ১১:১৩মিঃ

৪ মাস পর আংশিক বেতন পেলেন গণস্বাস্থ্যের ৮৫০ প্যারামেডিক

⏱ | মঙ্গলবার, জুলাই ২১, ২০২০ 📁 ঢাকা, দেশের খবর

ধীরা ঢালী, গবি সংবাদদাতা- দীর্ঘ সময়ের পর আংশিক বেতন পেল গণস্বাস্থ্যের স্বাস্থ্যকর্মীরা। গত চার মাসের বেতন আটকে ছিল গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্যারামেডিকদের।

সোমবার (২০ জুলাই) অধিকাংশ প্যারামেডিকদের দুমাসের বেতন পরিশোধ করেছে গণস্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ। আর্থিক সংকটের কারণে বেতন দিতে দেরী হয়েছে বলে জানিয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের সিনিয়র পরিচালক (গ্রামীণ স্বাস্থ্য) ডা: একেএম রেজাউল হক।

তিনি বলেন, “আমাদের ফান্ডিং এর অবস্থা খুবই খারাপ। কোনো উপায় না পেয়ে শেষে ব্যাংক লোন নিয়ে প্যারামেডিকদের দুমাসের বেতন পরিশোধ করছি।”

জানা যায়, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র বাংলা ক্যালেন্ডার মেনে চলে। বেতন থেকে শুরু করে তারা বাংলা মাস মেনেই সকল কার্যক্রম পরিচালনা করে। বর্তমানে সারাদেশে গণস্বাস্থ্যের প্রায় অর্ধ-শতাধিক সাবসেন্টার, হাসপাতাল, ডায়ালাইসিস সেন্টারে ৮৫০ জন প্যারামেডিক সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। এই করোনাকালীন সময়ে তারা বেতন-ভাতা থেকে পুরোপুরি বঞ্চিত ছিল।

সবশেষে সোমবার ২০ জুলাই (০৫ই শ্রাবণ) স্বাস্থ্যকর্মীদের দুমাসের বেতন দেয়া হয়। কিন্তু ঈদের আগে আর কোনো বেতন পরিশোধের সম্ভাবনা নেই বলেও জানিয়েছেন ডাঃ রেজাউল হক।

তবে কেউ কেউ দুমাসের বেতন পেলেও প্যারামেডিকদের একাংশ যারা সাভার স্বাস্থ্য কার্যক্রমের অধীনস্ত, তারা কেবলমাত্র এক মাসের বেতন পেয়েছেন।

এ বিষয়ে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের সাভার স্বাস্থ্য কার্যক্রমের এক কর্মকর্তা (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) জানায়, সাভার স্বাস্থ্যের অধীনের শতাধিক (১০৫ জন) প্যারামেডিকের এক মাসের বেতন প্রদান করা হয়েছে। প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী বাকি এক মাসের বেতনও ঈদের আগেই দেওয়া হবে। করোনা পরিস্থিতির কারণে বেতন প্রদানে হেরফের হয়েছে।

সাভার গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সাভার স্বাস্থ্য কার্যক্রমের পরিচালক ডাঃ মিজানুর রহমান বলেন, “যারা একমাসের বেতন পেয়েছে তাদের ঈদের আগে আরও এক মাসের বেতন দেয়া হবে।”

উল্লেখ্য, এর আগে বিভিন্ন মাধ্যমে খবর প্রচারিত হলে কোরবানীর ঈদের আগে দুমাসের বেতন পরিশোধের প্রতিশ্রুতি দেয় কর্তৃপক্ষ। কিন্তু দুমাসের বেতন পেলেও তাদের আরও তিনমাসের বেতন এবং যারা একমাসের বেতন পেয়েছে তাদের আরও চার মাসের বেতন বাকি থাকছে।