• আজ শুক্রবার। গ্রীষ্মকাল, ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। রাত ৪:২৬মিঃ

নকল মাস্ক সরবরাহ: আ.লীগের সাবেক নেত্রী শারমিন গ্রেফতার

⏱ | শনিবার, জুলাই ২৫, ২০২০ 📁 আলোচিত বাংলাদেশ

রাজু আহমেদ, স্টাফ রিপোর্টার- বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) অপ্রতিরোধ্য সংক্রমণ রুখতে বাংলাদেশে মাস্কের ব্যবহার বাধ্যতামূলক ঘোষণা করেছে সরকার। অনেকেই এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে মাস্ক, পিপিই ও হ্যান্ড-স্যানিটাইজারসহ বিভিন্ন ক্লিনার পণ্যের রমরমা বাণিজ্য চালিয়ে যাচ্ছেন।

এবার নকল মাস্ক সরবরাহের অভিযোগে অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনাল নামক একটি প্রতিষ্ঠানের মালিক আওয়ামী লীগের সাবেক নেত্রী শারমিন জাহানকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) রমনা বিভাগের একটি আভিযানিক দল।

শুক্রবার (২৪ জুলাই) রাত সাড়ে ১০টার দিকে রাজধানীর শাহবাগ থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ডিএমপির গোয়েন্দা পুলিশের রমনা বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) আজিমুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে গণমাধ্যমকে জানান, বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) নকল মাস্ক সরবরাহের অভিযোগে অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনাল নামক প্রতিষ্ঠানটির এই স্বত্বাধিকারীর বিরুদ্ধে শাহবাগ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) কর্তৃপক্ষ। পরে শুক্রবার রাতে রাজধানীর শাহবাগ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য কনক কান্তি বড়ুয়ার নির্দেশে বৃহস্পতিবার রাতে প্রক্টর মোজাফফর আহমেদ শাহবাগ থানায় মামলাটি দায়ের করেন বলে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন বিএসএমএমইউয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার মজুমদার।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজে স্নাতকোত্তর শারমিন ২০০২ সালে ছাত্রলীগের বাংলাদেশ কুয়েত মৈত্রী হল শাখার সভাপতি নির্বাচিত হন। আওয়ামী লীগের গত কমিটিতে তিনি মহিলা ও শিশুবিষয়ক কেন্দ্রীয় উপকমিটির সহসম্পাদক ছিলেন। বর্তমান কমিটিতে কোনো পদ না পেলেও দলের সঙ্গে সক্রিয়ভাবে জড়িত।

শারমিন ২০১৬ সালের ৩০ জুন স্কলারশিপ নিয়ে চীনের উহানের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যান। গত ২৩ জানুয়ারি থেকে উহানে লকডাউন শুরু হলে তিনি দেশে ফিরে আসেন। তার শিক্ষা ছুটির মেয়াদ এখনও শেষ হয়নি।

এর মধ্যে চীনে থাকা অবস্থায় ২০১৯ সালের মার্চে অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনাল নামে সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান গড়ে নিজের ব্যবসা শুরু করেন।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান বলেন, মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে যে অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনাল নামে একটি প্রতিষ্ঠান বিএসএমএমইউ’র চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য ১১ হাজার এন-৯৫ মাস্ক সরবরাহের অনুমতি পায়। মাস্কগুলো সরবরাহের পর চিকিৎসকরা ব্যবহারের সময় কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করেন। চিকিৎসকরা জানান যে মাস্কগুলো মান সম্মত নয়। স্থানীয় বাজারের তৈরি করা মানহীন মাস্ক দেওয়া হয়েছে। এগুলো পরিধান করে কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা প্রদান করা সম্ভব নয়। পরে বিএসএমইউ কর্তৃপক্ষ পরীক্ষা করে নিশ্চিত হয় যে মাস্কগুলো মান সম্মত নয়।