সংবাদ শিরোনাম

হাসিনা-মোদির সুসম্পর্কের কারণেই টিকা এসেছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রীনিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ঘরে ঢুকে পড়ল ট্রাক, প্রাণ গেল ঘুমন্ত ব্যক্তিরটাঙ্গাইলে নারীর গোসলের ভিডিও ধারণকারী ছাত্রলীগ নেতা কারাগারেভূঞাপুর পৌর নির্বাচনঃ সকালে ব্যালট সামগ্রী পাঠাতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর আবেদনপদ্মা সেতুর নাম ‘শেখ হাসিনা সেতু’র প্রস্তাবে প্রধানমন্ত্রীর নাহাতীবান্ধায় ব্রিজ নির্মাণে খুশি চরাঞ্চলের হাজার মানুষআবারও পপির বিয়ের গুঞ্জন৮ ফেব্রুয়ারি থেকে সারা দেশে টিকাদান শুরু: স্বাস্থ‌্যমন্ত্রীমিরপুরে ডিএনসিসির উচ্ছেদে বাধা, পুলিশের সঙ্গে স্থানীয়দের সংঘর্ষবৃদ্ধাকে নির্যাতনকারী ভয়ঙ্কর সেই গৃহকর্মী ঠাকুরগাঁওয়ে গ্রেপ্তার

  • আজ ৭ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের ১২ বছর কারাদণ্ড

◷ ৬:২৪ অপরাহ্ন ৷ মঙ্গলবার, জুলাই ২৮, ২০২০ আন্তর্জাতিক
image 170777 1595936685

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রীয় বিনিয়োগ তহবিলের (ওয়ানএমডিবি) অর্থ কেলেঙ্কারির প্রথম মামলায় দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাককে ১২ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার এই রায় ঘোষণার আগে তার বিরুদ্ধে আনা ৭ অভিযোগের প্রত্যেকটিতেই দোষী সাব্যস্ত করা হয়। বিচারক মোহাম্মদ নাজলান ঘাজালি জানান, ক্ষমতার অপব্যবহারের একটি ধারায় নাজিবকে ১২ বছর কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে। এছাড়া বিশ্বাসভঙ্গের তিনটি ধারা এবং অর্থ পাচারের তিনটি ধারার প্রতিটির জন্য ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

তবে এসব সাজা একসঙ্গে চলায় তাকে মোট ১২ বছর কারাগারে থাকতে হবে। এর পাশাপাশি তাকে ৪ কোটি ৮৪ লাখ ডলার জরিমানাও করা হয়েছে। এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের সুযোগ পাবেন তিনি।

এদিকে রায় ঘোষনার পর নাজিব সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক উওেজনা বিরাজ করছে। দিনভর আদালত প্রাঙ্গণে ছিলেন তার সমর্থকরা। মিটিং ও প্রতিবাদ মিছিল করতে দেখা গেছে তাদের।

নাজিব রাজাক ২০০৯ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় ছিলেন। আস্থা লঙ্ঘন, অর্থ পাচার ও ক্ষমতার অপব্যবহারসহ সাতটি মামলার মোকাবেলা করতে হয়েছে নাজিবকে। সাবেক ওয়ানএমডিবি’র ইউনিট এসআরসি থেকে এক কোটি ডলার অবৈধভাবে নেয়ার অভিযোগও আছে তার বিরুদ্ধে।

দুর্নীতির বিরুদ্ধে ধরপাকড়ে দেশটির চেষ্টার প্রথম পরীক্ষা হিসেবে দেখা হচ্ছে এই মামলাকে। যাতে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে ব্যাপক রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতা আছে।

২০১৮ সালের নির্বাচনে হেরে ক্ষমতাচ্যুত হন নাজিব। ওয়ানএমডিবি থেকে সাড়ে চার কোটি ডলার চুরিসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। কৌঁসুলিদের দাবি, তহবিল থেকে এক কোটির বেশি ডলার তার ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।