🕓 সংবাদ শিরোনাম

আফগানিস্তানে অপরাধীদের হাত-পা কেটে দেওয়ার শাস্তি ফিরছে: তালিবান নেতাহুয়াওয়ে মালিকের মেয়েকে মুক্তির বদলে দুই কানাডিয়ানকে ছেড়ে দিলো চীনজাতিসংঘে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণের দিন আজইলিশ রফতানি: বাংলাদেশের নতুন শর্তে আশাভঙ্গের শঙ্কায় ভারতনোয়াখালীতে মুরগি নিয়ে মারামারিতে প্রাণ গেল বৃদ্ধের, গ্রেফতার ২জরুরি ভিত্তিতে টিকা নিয়ে বৈষম্য দূর করতে হবে: জাতিসংঘে ভাষণে প্রধানমন্ত্রীফটিকছড়িতে ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিতবেদে পল্লীর শিশুদের হাতে নতুন বই, পড়াবেন তরুন শিক্ষার্থীরা !ষড়যন্ত্রকারীদের মুখোশ খুলে দেওয়া হবে: মেয়র জাহাঙ্গীর৪০ দিন জামাতে নামাজ পড়ে সাইকেল পেল ৯ কিশোর

  • আজ শনিবার, ১০ আশ্বিন, ১৪২৮ ৷ ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ৷

বান্দরবানে পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা মাদক ব্যবসায়ী নিহত


❏ বৃহস্পতিবার, জুলাই ৩০, ২০২০ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

এস.কে খগেশপ্রতি চন্দ্র খোকন, বান্দরবান প্রতিনিধি- বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুনধুম সীমান্তে পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মোঃ শাহ আলম নামের এক রোহিঙ্গা ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন।

এ সময় তার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে একটি আগ্নেয়াস্ত্র, ২ রাউন্ড গুলি ও ৪০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) ভোর ৪টার দিকে ঘুনধুমের বেদবুনিয়া বাজারের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত শাহ আলম কক্সবাজারের উখিয়া ১নং কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা। তার বিরুদ্ধের নাইক্ষ্যংছড়ি ও উখিয়া থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানাগেছে।

পুলিশ জানায়, রাতে এলাকার মোস্ট ওয়ান্টেড ইয়াবা কারবারি মো. শাহ আলমকে উখিয়া থেকে আটক করা হয়। মোঃ শাহ আলম রোহিঙ্গা নাগরিক। পরে তাকে নিয়ে সীমান্তপথে ইয়াবার চালান আসছে এই খবরে গুনধুম সীমান্ত এলাকায় গেলে সেখানে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা ইয়াবা চোরাকারবারীদের সাথে বন্দুকযুদ্ধে গুলিবিদ্ধ হয়ে শাহ আলম নিহত হয়।

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি থানান অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ আলমগীর হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আনুমানিক ৩টার দিকে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সীমান্ত ঘুমধুম ইউনিয়নের বাংলাদেশ-মিয়ানমার চীন মৈত্রী সড়কের গাড়ি পার্কিং এলাকা ও বন্দুকযুদ্ধে নিহত ব্যক্তির সহযোগী মুজিবুল হকের বাড়ির সংলগ্ন গহীন পাহাড়ে একদল অস্ত্রধারী ইয়াবা ব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসী দল অবস্থান করছে৷

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জীবন চৌধুরীসহ পুলিশের একটি দল অভিযান চালায়। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে উপস্থিতি টের পেয়ে ইয়াবা ব্যাবসায়ী ও সন্ত্রাসী দলের ঔঁত পেতে থাকা অন্যান্য সদস্যরা অতর্কিত গুলি ছোঁড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে।

এ সময় উভয়পক্ষের মধ্যে গোলাগুলির এক পর্যায়ে সন্ত্রাসী দলের সদস্যরা পালিয়ে যায়। পরে গোলাগুলি থেমে গেলে ঘটনাস্থলে ১ জনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। এতে পুলিশের ২ সদস্য আহত হয়েছে। ঘটনাস্থল ৪০ হাজার ইয়াবা, ১টি আগ্নেয়াস্ত্র ও ২টি গুলি উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরো বলেন, গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক গুলিবিদ্ধ ব্যক্তিকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ব্যাপারে মৃত আসামিসহ পলাতক আসামিদের বিরুদ্ধে নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় একটি হত্যা মামলা, একটি অস্ত্র মামলা ও একটি মাদক মামলা রুজুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ওসি মুহাম্মদ আলমগীর হোসেন।

নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন