শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে চলছে ৪টি ফেরি

◷ ৬:২০ অপরাহ্ন ৷ রবিবার, আগস্ট ২, ২০২০ ঢাকা
mouu

মোঃ রুবেল ইসলাম তাহমিদ, শিমুলিয়া ফেরি ঘাট থেকেঃ শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে ৩৪ ঘন্টা পর ফেরি চলাচল শুরু করেছে। এর আগে এ নৌরুটে গেল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে কয়েকটি ফেরি চলাচল বন্ধ করা হয়।

শুক্রবার দুপুর ২ টার দিকে শিমুলিয়া ঘাট সংলগ্ন কুমারভোগ এলাকায় পদ্মা সেতুর কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে ভাঙন শুরু হয়। এতে ফেরি ঘাটে আবার ভাঙনের কবলে পড়তে পারে এমন আশঙ্কায় রাত ৮টা থেকে এ বহরের সকল ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয় বিআইডডব্লিউটিসি কতৃপক্ষ।

এ ছাড়া শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে দীর্ঘদিন ধরেই ফেরি চলাচল ব্যহত হচ্ছে। এতে করে দুর্ভোগে পড়েছেন দক্ষিণবঙ্গের ২৩টি জেলার মানুষ। এবারের কোরবানির ঈদেও অনেকেই ফেরি বন্ধের কারণে ফিরে গেছেন পাটুরিয়া ঘাট দিয়ে। গতকাল শনিবার (০১ আগস্ট) বিকেল পরীক্ষামূলকভাবে একটি ফেরি চললেও পরে বন্ধ রাখা হয়।

আজ রোববার (২ আগস্ট) দুপুর সাড়ে ৩টা থেকে চারটি ফেরি শিমুলিয়া ঘাট থেকে চলাচল শুরু করছে। বর্তমানে শিমুলিয়ায় পারের অপেক্ষায় রয়েছে প্রায় ২শ গাড়ি। অন্যদিকে, লঞ্চ, স্পিডবোট ঘাটে যাত্রীদের উপস্থিতি স্বাভাবিক।

শিমুলিয়া ঘাটের বিআইডাব্লিউটিসি’র সহকারী ব্যাবস্থাপক প্রফুল্ল চৌহান জানান, দুপুর থেকে একটি রো রো ফেরিসহ চারটি ফেরি চলাচল করছে। পারের অপেক্ষায় প্রাইভেটকার ও মোটরসাইকেলের সংখ্যাই বেশি আছে। তবে মোটরসাইকেলগুলো ফেরির পল্টুনে সামনে এসে জটলা তৈরি করছে। এছাড়া অন্য গাড়ি প্রবেশের পথেও বাধা তৈরি করছে।

ফেরিগুলোতে মোটরসাইকেল অনেক বেশি। পদ্মার তীব্র স্রোতের জন্য পরীক্ষামূলকভাবে ফেরি চলাচল করছে। ১৬টি ফেরির মধ্যে চারটি ফেরি চলছে, বাকিগুলো তীব্র স্রোতের মধ্যে চালানো সম্ভব নয়।

বিআইডাব্লিউটিএ’র শিমুলিয়া ঘাটের নৌ-পরিদর্শক মোহাম্মদ সোলেমান জানান, লঞ্চ ও স্পিডবোট ঘাটে যাত্রীদের উপস্থিতি স্বাভাবিক আছে।