🕓 সংবাদ শিরোনাম

রংপুরে ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল ৩ নারী শ্রমিকেরভুয়া স্বাক্ষর দিয়ে মিথ্যা অভিযোগ, প্রতিবাদে মানববন্ধনমানিকগঞ্জের কেন্দ্রে গুলোতে পৌঁছেছে নির্বাচনী সামগ্রী, ব্যালট যাবে সকালেমুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে হবে: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীবগুড়ায় চেয়ারম্যান পদে ভাইয়ের প্রতিদ্বন্দ্বী ভাই!শরীয়তপু‌রে নির্বাচনী সহিংসতায় দলীয় কর্মীর মৃত্যুতে সংবাদ স‌ম্মেলনমন্ত্রিত্ব একটি চ্যালেঞ্জিং জব: কাদেরটাঙ্গাইলে শ্রমিক লীগ নেতা হত্যায় মামলা, গ্রেপ্তার ২ছোটবেলায় আমরাও হাফ ভাড়ায় চলেছি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসংসদে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের পক্ষে কথা বলে তোপে বিএনপির হারুন

  • আজ শনিবার, ১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ২৭ নভেম্বর, ২০২১ ৷

করোনামুক্ত হয়ে বাড়ি ফিরলেন অমিতাভ, অভিষেক এখনও হাসপাতালে

amitaaa
❏ রবিবার, আগস্ট ২, ২০২০ বিনোদন

বিনোদন ডেস্কঃ অবশেষে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন বলিউড অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন। তাঁর করোনাভাইরাস পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। বিষয়টি খোদ অমিতাভ বচ্চন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানিয়েছেন।

রবিবার (২ আগস্ট) বিকালে এক ফেসবুক পোস্টে অমিতাভ লেখেন, ‌‘অবশেষে আজ সকালে আমার করোনার ফল নেগেটিভ এসেছে। আমি বাসায় ফিরেছি। আমাকে কদিন আমার ঘরে একেবারের নিরবিচ্ছিন্নভাবে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। সবাইকে ধন্যবাদ যারা আমাদের জন্য প্রার্থনা করেছেন। বিশেষ করে নানাবতী হাসপাতালের সবাইকে কৃতজ্ঞতা।’

এক টুইটে অভিষেক লেখেন, ‘সৌভাগ্যবশত আমার বাবার লেটেস্ট করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন। বাড়ি গিয়ে বাবা এখন বিশ্রামে থাকবেন। ধন্যবাদ আপনাদের প্রার্থনা ও শুভেচ্ছার জন্য।’

আরেকটি টুইটে নিজের স্বাস্থ্যের খোঁজও জানিয়েছেন অভিষেক। লিখেছেন, ‘আমি দুর্ভাগ্যবশত কোমর্বিডিটির কারণে এখনও করোনাভাইরাস পজিটিভ। এবং হাসপাতালেই রয়েছি। আবার সবাইকে ধন্যবাদ জানাই আমার পরিবারের প্রতি আপনাদের প্রার্থনা ও শুভেচ্ছার জন্য। আমি করোনা জয় করে তাড়াতাড়ি ফিরব, আরও সুস্বাস্থ্য নিয়ে, প্রমিস।’

উল্লেখ্য করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ১১ জুলাই থেকে মুম্বাইয়ের ননবতী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন অমিতাভ বচ্চন। একই দিনে ভর্তি হন তাঁর ছেলে অভিষেক বচ্চন। কয়েক দিন পর করোনায় আক্রান্ত হয়ে একই হাসপাতালে ভর্তি হন ঐশ্বরিয়া ও আরাধ্যা। গত ২৭ জুলাই ঐশ্বরিয়া ও তাঁর কন্যা আরাধ্যার করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসে। ওই দিনই হাসপাতাল থেকে বাড়িতে ফেরেন তাঁরা।