রিমান্ড নামঞ্জুর, অপু কারাগারে

opu

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকাঃ জনপ্রিয় চীনা ভিডিও অ্যাপ টিকটকের ‘বিতর্কিত মুখ অপু ভাই’কে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার (৩ জুলাই) সন্ধ্যায় রাজধানীর উত্তরা থেকে তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

জানা যায়, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক প্রকৌশলীর সাথে মারামারির সময় ‘অপু ভাই’কে স্থানীয়রা গণপিটুনিও দেয়। পরবর্তীতে পুলিশ তাকে আটক করে নিয়ে থানায় নিয়ে যায়। এরপর একটি মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।

মঙ্গলবার (৪ আগস্ট) পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে উত্তরা পূর্ব থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আদিল হোসেন জানান। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনদিনের রিমান্ড চেয়ে অপু ও তার সহযোগীদের আদালতে পাঠানো হয়। তবে রিমান্ড নামঞ্জুর করে আদালত কারাগারে পাঠিয়েছে অপুকে।

মামলার বাদী এস এম মাহবুব আলমের ছেলে ভুক্তভোগী প্রকৌশলী মেহেদী হাসান রবিন বলেন, রোববার সন্ধ্যা আমি কোরবানির মাংস দিতে শ্বশুড়বাড়িতে গিয়েছিলাম। সেখান থেকে ফেরার পথে প্রাইভেটকারে আমি ও আমার তিন বন্ধু ছিলাম। উত্তরা আলাউল এভিনিউতে যাওযার পর দেখি আনুমানিক ৪০/৫০ জন পুরো সড়ক বন্ধ করে কিছু একটা করছে। তখন আমরা যাওয়ার জন্য হর্ণ দিচ্ছিলাম। পরে দেখি ওরা টিকটক শ্যুটিং করছে। পরে তারা গাড়ির সামনে এসে ব্যাট কমেন্টস করছিল। তখন আমি গাড়ি থেকে নেমে জিজ্ঞেস করি, কি সমস্যা? এতেই ওরা আমাদের ওপর চড়াও হয় এবং মারধর শুরু করে। একপর্যায় ওরা আমার মাথায় আঘাত করে এবং দেশীয় অস্ত্র দিয়ে ভয়ভীতি দেখায়। পরে সেখান থেকে হাসপাতালে গিয়ে ট্রিটমেন্ট নেই।

তিনি বলেন, আমরা মাথায় তিনটি সেলাই লেগেছে। সোমবার সকালে আমার বাবা উত্তরা পূর্ব থানায় আটজনের নামোল্লেখ একটি মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় অজ্ঞাতনামা আরও ২০/২৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। এজাহারভুক্ত আসামির মধ্যে টিকটকার অপু ভাই (২০), শাহাদাত হোসেন (৩০), রনি (২৫), জসিম উদ্দিন (৪৫), মুরাদ (২২), নাজমুল (২১), শাকিল (২৫) ও সানিসহ (২২) রয়েছেন।

ওই মামলার ভিত্তিতে সোমবার সন্ধ্যায় উত্তরা আলাউল এভিনিউ এলাকায় অভিযান চালিয়ে টিকটকার অপু ভাই ও তার এক সহযোগী নাজমুলকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

Sharing is.

Share on facebook
Share with others
Share on google
Share On Google+
Share on twitter
Share On Twitter