• আজ ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিশ্বে গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ আক্রান্ত-মৃত্যু ভারতে

৮:২৮ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, আগস্ট ৪, ২০২০ আন্তর্জাতিক
ind

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত-মৃত্যু দেখেছে ভারত। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছে ৮০৩ জন। এ সময় সংক্রমিত হয়েছেন ৫২ হাজারের বেশি। অথচ করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুতে শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে এই একদিনে শনাক্ত হয়েছে ৪৮ হাজার ৬২২ জন। মারা গেছেন ৫৭২ জন।

কয়েকদিন ধরে ভারতে প্রায় প্রতিদিনই ৫০ হাজারের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। দেশটিতে ইতোমধ্যেই করোনা সংক্রমণ ১৮ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসাব অনুযায়ী, দেশটিতে একদিনে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৫২ হাজার ৫০ জন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৮ লাখ ৫৫ হাজার ৭৪৫।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার জেরে মৃত্যু হয়েছে ৮০৩ জনের। এ নিয়ে দেশে মোট ৩৮ হাজার ৯৩৮ জনের প্রাণ কাড়ল করোনাভাইরাস। এর মধ্যে মহারাষ্ট্রেই মারা গেছেন ১৫ হাজার ৮৪২ জন।

দিল্লিকে পেছনে ফেলে মৃত্যু তালিকার দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে তামিলনাড়ু। দক্ষিণের এই রাজ্যে করোনায় এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৪ হাজার ২৪১ জন। দিল্লিতে মারা গেছে ৪ হাজার ২১ জন।

মৃত্যু বেড়ে তালিকার চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে কর্নাটকে। এ রাজ্যে এখন পর্যন্ত ২ হাজার ৫৯৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। গুজরাটে ২ হাজার ৫০৮ জনের প্রাণ কেড়েছে করোনাভাইরাস। এছাড়া উত্তরপ্রদেশ রাজ্যে ১ হাজার ৭৭৮ জন, পশ্চিমবঙ্গে ১ হাজার ৭৩১ জন এবং ও অন্ধ্রপ্রদেশে ১ হাজার ৫৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।

সংক্রমণের নিরিখে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে ভারত তৃতীয়। আমেরিকা ও ব্রাজিলের পরই করোনা মহামারীতে সবচেয়ে প্রভাবিত দেশ ভারত। কিন্তু প্রত্যেক দশ লাখের হিসাবে অন্য দেশের তুলনায় ভারতে মৃত্যু হার অনেক কম।

এদিকে, পশ্চিমবঙ্গে সামাজিক সংক্রমণ শুরু হওয়ায় সপ্তাহে দু’দিন করে সম্পূর্ণ লকডাউন করা হচ্ছে। গতকাল (সোমবার) সন্ধ্যায় রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা কর্তৃক সংশোধিত তালিকা অনুযায়ী, চলতি আগস্ট মাসে ৫ (বুধবার), ৮ (শনিবার), ২০ (বৃহস্পতিবার), ২১ (শুক্রবার), ২৭ (বৃহস্পতিবার), ২৮ (শুক্রবার) এবং ৩১ (সোমবার) সম্পূর্ণ লকডাউন হবে। সকাল ৬ টা থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত চলবে ওই লকডাউন।