• আজ রবিবার, ১৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ২৮ নভেম্বর, ২০২১ ৷

‘সহিসংতা ছাড়া সরকারি দলের নেতাকর্মীরা স্বস্তি পায়না’- ফখরুল

fok
❏ বুধবার, আগস্ট ৫, ২০২০ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ সহিসংতা ছাড়া সরকারি দলের নেতাকর্মীরা স্বস্তি পায়না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সম্প্রতি নড়াইল জেলাধীন লোহাগড়া পৌর বিএনপি’র ৯ নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিল মোল্লাকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হাতের কব্জি, দুটো পা ও শরীরের নানা অংশে গুরুতর জখম করার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এমন মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল।

গণমাধ্যমে পাঠানে এক বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল বলেন, মূলত করোনা মহামারি, বন্যা, ক্ষুধা, বেকারত্ব ইত্যাদি কারণে দেশে নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি। এ সুযোগে জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে ফেরাতেই সরকার বিএনপিসহ বিরোধী দল ও মতের মানুষদের ওপর আক্রমণ চালিয়ে রক্তাক্ত করছে। সারা বাংলাদেশ এখন ভুতুড়ে নগরীতে পরিণত হয়েছে। ভয় ও আতঙ্ক মানুষের নিত্যসঙ্গী। শুধুমাত্র বৈশ্বিক মহামারি কোভিড-১৯ এর আতঙ্কই নয়, মিথ্যা মামলা-গ্রেফতার-হয়রানিসহ গুম ও বিচার বহির্ভূত হত্যার ভয়ও সাধারণ মানুষকে সারাক্ষণ উদ্বিগ্ন করে রাখে।

তিনি বলেন, ভোটারবিহীন অগণতান্ত্রিক সরকার জনরোষের ভয়ে সবসময় আতংকিত থাকে বলেই সহিংস সন্ত্রাসকে আঁকড়ে ধরেছে। এই কারণেই লোহাগড়ার বিএনপি নেতা আব্দুল জলিল মোল্লাদের মতো নিবেদিত প্রাণ মানুষদের দুনিয়া থেকে সরিয়ে দেয়ার জন্য ধারালো অস্ত্র নিয়ে সরকার দলীয় সন্ত্রাসীরা দেশের বিভিন্ন জনপদে রক্ত ঝরাচ্ছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, গণতন্ত্র-শূন্য করে ক্ষমতাসীন গোষ্ঠী এখন বিরোধীদল শূন্য করার নীতি বাস্তবায়ন করছে চরম উৎসাহ সহকারে। এই সরকার ক্ষমতাসীন হওয়ার পর থেকে অস্বাভাবিক মৃত্যু যেন প্রায় প্রতিদিনই বাংলাদেশের গণমাধ্যমে শীর্ষ সংবাদ হচ্ছে। তিনি বলেন, নড়াইল জেলার লোহাগড়া বিএনপি নেতা জলিল মোল্লার ওপর নৃশংস হামলা কাপুরুষোচিত, এটি বর্বরোচিত হামলার এক বিভৎস দৃষ্টান্ত। হত্যার উদ্দেশ্যেই এই অমানবিক সন্ত্রাসী হামলা করা হয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব আব্দুল জলিল মোল্লার ওপর নৃশংস আক্রমণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে জড়িত দুষ্কৃতিকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন। তিনি আব্দুল জলিল মোল্লার দ্রুত সুস্থতা কামনা করেন।