সংবাদ শিরোনাম

ফেনীতে ধানের শীষের প্রচারণায় অংশ নেয়ায় পুড়িয়ে হত্যার ‍হুমকি১১ ঘণ্টা পর শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে ফেরি চলাচল স্বাভাবিকপাবনায় চিংড়ি মাছের শরীরে আল্লাহপাকের নাম!স্কুল-কলেজ খোলার সিদ্ধান্ত ৪ ফেব্রুয়ারির পর: শিক্ষামন্ত্রীবিচারকের সঙ্গে অশোভন আচরণ: নিঃশর্ত ক্ষমার আবেদন কুষ্টিয়ার এসপি’রফরিদপুরের সেই বীর মুক্তিযোদ্ধার পাশে উপজেলা চেয়ারম্যানপ্রধানমন্ত্রী আপনি প্রথম টিকাটি নিন: মির্জা ফখরুললতিফ সিদ্দিকীর দখলে থাকা ৫০ কোটি টাকার সরকারি জমি উদ্ধারউত্তরবঙ্গে চা উৎপাদনে সর্বোচ্চ রেকর্ড অর্জনআশুলিয়ায় পুকুরে বিষ প্রয়োগ, মরে ভেসে উঠল ২ লক্ষাধিক টাকার মাছ

  • আজ ১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে ৪ বাংলাদেশি নিহত

◷ ১১:৩৫ অপরাহ্ন ৷ বুধবার, আগস্ট ৫, ২০২০ আন্তর্জাতিক
TOPSHOT-LEBANON-BLAST

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ লেবাননের রাজধানী বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে আরও দুই বাংলাদেশি মারা গেছেন। এ নিয়ে বিস্ফোরণে চার বাংলাদেশি মারা গেলেন। এ ছাড়া জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে মেরিটাইম টাস্কফোর্সের অধীনে নিয়োজিত বাংলাদেশ নৌবাহিনী জাহাজ বিজয়ের ২১ জন সদস্যসহ প্রায় ১০০ জন আহত হয়েছেন।

নিহতরা হলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মেহেদি হাসান ও রাসেল মিয়া, কুমিল্লার রেজাউল এবং মাদারীপুরের মিজানুর রহমান।

বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ২১ জন সদস্য আহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর)। নৌবাহিনীর সদস্যরা জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে মেরিটাইম টাস্কফোর্সের অধীনে সেখানে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

আইএসপিআর বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, আহতদের মধ্যে হারুন-অর-রশিদ (সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার) নামে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাকে আমেরিকান ইউনিভার্সিটি অব বৈরুত মেডিক্যাল সেন্টারে (এইউবিএমসি) ভর্তি করা হয়েছে।

আহত অন্য সদস্যদের লেবাননে জাতিসংঘের অন্তর্বর্তীকালীন বাহিনীর (ইউনিফিল) তত্ত্বাবধানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে হেলিকপ্টার ও অ্যাম্বুলেন্সে করে হামুদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা সবাই বাংলাদেশ নৌবাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’-এর সদস্য।

সার্বিক পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছেন ও সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দিয়েছেন ইউনিফিল হেড অব মিশন এবং ফোর্স কমান্ডার ও মেরিটাইম টাস্কফোর্স কমান্ডার।

বৈরুতে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল জাহাঙ্গীর আল মোস্তাহিদুর রহমান সরেজমিনে ‘বিএন বিজয়’ পরিদর্শন করেন এবং আহতদের হাসপাতালে স্থানান্তর ও যথাযথ চিকিৎসা প্রদানে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করেন।

২০১০ সাল থেকে লেবাননে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নিয়ে আসছে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ।

বাংলাদেশ নৌবাহিনীর জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ হিসেবে ২০১৮ সালে বৈরুত বিএএনসিওএন-৮ আওতায় ১১০ জন সদস্য পাঠায়। ২০১৯ সালে ৮ জুলাই থেকে তারা বিএএনসিওএন-১০ অংশ হয়ে কাজ করছেন।

রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল জাহাঙ্গীর আল মোস্তাহিদুর রহমান এক ভিডিও বার্তায় প্রথমে দুজন নিহতের কথা জানিয়েছিলেন। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও দুজন মারা যান।

এর আগে ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, লেবাননে প্রায় দেড় লাখের মতো বাংলাদেশি লোক বিভিন্ন শ্রেণি পেশায় কর্মরত আছে। এ পর্যন্ত দুজন বাংলাদেশি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এ ঘটনায় ৮০ জন বাংলাদেশি আহত হয়েছে। এর মধ্যে আটজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে। দূতাবাসের পক্ষ থেকে তাদের যথাযথ চিকিৎসার জন্য সার্বক্ষণিক যোগযোগ রাখা হচ্ছে এবং সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, যেখানে বিস্ফোরণ হয়েছে সেখান থেকে মাত্র ২০০ গজ দূরে লেবাননে জাতিসংঘের অন্তর্বর্তীকালীন বাহিনীতে (ইউনিফিল) কর্মরত বাংলাদেশ নৌবাহিনীর একটি জাহাজ ছিলো। বাংলাদেশ নৌবাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’-এর ক্যাপ্টেনের সাথে কথা বলে জানতে পারি বিস্ফোরনের ঘটনায় জাহাজের বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে এবং জাহাজে থাকা সদস্যদের মধ্যে ১৮ জন বিভিন্নভাবে আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত দুজনের এক জনের অবস্থা ভালো হওয়ায় হাসপাতাল থেকে তাকে নিয়ে আসা হয়েছে এবং অন্যজনের এখনো চিকিৎসাধীন আছেন।

লেবাননের এ পরিস্থিতির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময় আপডেট নিচ্ছেন জানিয়ে তিনি বলেন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে লেবাননে বাংলাদেশি কমিউনিটি ভালো থাকা, তাদের সুচিকিৎসা দেয়া এবং প্রয়োজনে আর্থিক সহায়তা প্রদানসহ বিভিন্ন বিষয়ে দিক নির্দেশনা দিচ্ছেন।

পরারাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন নিয়মিত খোঁজখবর নিচ্ছেন জানিয়ে তিনি বলেন, লেবাননে এ মূহুর্তে কোনো ধরনের সহায়তা পাঠানো হলো দেশটির সাথে কাছে আমাদের দেশের ভাবমূর্তি আরও উজ্জ্বল হবে এবং সেই সাথে দ্বিপাক্ষীক সর্ম্পক আরও সূদৃঢ় হবে।