সংবাদ শিরোনাম
সীমান্ত থেকে ফেরত গেল ১২ হাজার টন ভারতীয় পেঁয়াজ | মানুষের আস্থা পেয়েছি বলেই দেশ স্থিতিশীল আছে: প্রধানমন্ত্রী | দেশে কমেছে করোনা শনাক্ত, মৃত বেড়ে ৫০৯৩ | এই দিনই দিন না, আরও দিন আছে: রিজভী | ‘৭৫ এর মত দেশকে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র এখনও চলছে’- প্রধানমন্ত্রী | করোনাপরবর্তী চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সার্কের দেশগুলোকে এক হয়ে কাজ করার আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর | দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত-মৃত্যুর সর্বশেষ তথ্য | কিশোরগঞ্জে জনসচেতনতায় মাদকবিরোধী পদযাত্রা অনুষ্ঠিত | টাঙ্গাইলে দূর্গা পূজায় তিন দিনের ছুটিসহ সংখ্যালঘু আইন বাস্তবায়নের দাবিতে মানববন্ধন | ‘ইয়েমেনে পরাজিত সৌদি রাজা সালমান প্রলাপ বকছেন’- ইরান |
  • আজ ১০ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ইমরানের সাবেক স্ত্রী বললেন- “আমার তো দিল্লিও চাই”

৯:০২ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, আগস্ট ৭, ২০২০ আন্তর্জাতিক
pak

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ পাকিস্তানের নতুন মানচিত্রে জায়গা পেয়েছে ভারতের তিনটি জায়গা। গত মঙ্গলবার মানচিত্রটি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হয়। এতে জম্মু-কাশ্মীর, লাদাখের পাশাপাশি গুজরাটের জুনাগঢ়কেও পাকিস্তানের নতুন ম্যাপে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

এ নিয়ে টেলিভিশন সঞ্চালিকা রেহম খান বিদ্রূপের সুরে বলেছেন, আরে পাকিস্তান কেবল কাশ্মীরেই থেমে গেল কেন! …আমি তো এর সঙ্গে দিল্লিও চেয়েছিলাম। ইমরান খান দাবি করেন, পাকিস্তানের সাধারণ মানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষা পূরণ হয়েছে নতুন ম্যাপে। তা মাথায় রেখেই এই কটাক্ষ করেছেন রেহম।

গত মঙ্গলবার বিতর্কিত মানচিত্র প্রকাশ করে ইমরান খান বলেন, পাকিস্তানের নতুন ম্যাপ বিশ্বের সামনে এনেছি। মন্ত্রীসভা ছাড়াও বিরোধী দল এমনকি কাশ্মীরি নেতৃত্বও এতে সমর্থন দিয়েছে। নতুন এই মানচিত্র পাকিস্তানের মানুষের আশা ও বিশ্বাসকে সমর্থন করে।

এই পাকিস্তানের সরকারি মানচিত্র উল্লেখ করে ইমরান খান বলেন, কাশ্মীর ও পাকিস্তানের মানুষের ইচ্ছা সম্পূর্ণ করবে এই মানচিত্র। কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করে ভারত যে অবৈধ পদক্ষেপ নিয়েছে, নতুন মানচিত্র তা বাতিল করে দেয়।

উল্লেখ্য ২০১৫ সালে ইমরানের সঙ্গে বিয়ে হয় সাংবাদিক রেহম খানের। কিন্তু, বছর না ঘুরতেই বিচ্ছেদ হয়ে যায়। ওই বছরের ৩০ অক্টোবর এ ঘোষণা দেন ইমরান খান। কারণ হিসেবে রেহম জানান, মানুষ হিসেবে ইমরান আর তিনি সম্পূর্ণ ভিন্ন মেরুর। তিনি কথা বলতে আর গল্প করতে ভালোবাসেন, আর ইমরান সম্পূর্ণ উল্টো।

তিনি জানান, ইমরানের সঙ্গে একান্ত মুহূর্তেও সিনেমা নিয়ে কথা বলা যেত না, পর্দার রং নিয়েও বলা যেত না। শুধু রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে কথা হতো। ইমরানের পরিবার চেয়েছে, তিনি শুধু রান্না আর ঘর-সংসার নিয়ে থাকুন। বাইরে গিয়ে তার কাজ করা পছন্দ ছিল না। পথশিশুদের নিয়ে কাজ করাও পছন্দ ছিল না তাদের।

সুত্রঃ জি নিউজ