খালেদার সাজার স্থগিতাদেশ শেষ হচ্ছে আগামী মাসে

১২:০৫ অপরাহ্ণ | রবিবার, আগস্ট ৯, ২০২০ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাজার ছয় মাসের স্থগিতাদেশের সময়সীমা আগামী মাসে শেষ হচ্ছে।

খালেদার শারীরিক অবস্থার কোনো পরিবর্তন না হওয়ায় সাজা স্থগিতের সময় বাড়াতে তার পরিবার পক্ষে আবেদন করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শনিবার (৮ আগস্ট) মির্জা ফখরুল বলেন, “সাজা স্থগিতের সময় বাড়াতে তারা সরকারের কছে আবেদেন করবেন কিনা, পরিবার এখনো সিদ্ধান্ত নেয়নি।”

ফখরুল বলেন, “এখনও যেহেতু ম্যাডাম সুস্থ হননি। তিনি একেবারেই আগের অবস্থাতেই আছেন। এ পরিস্থিতিতেই সাজার স্থগিতাদেশের সময়সীমা শেষ হয়ে যাচ্ছে।”

“সাজা স্থগিতের সময় বাড়াতে পরিবার এখনও সিদ্ধান্ত নেয়নি। অতীতের মতো ম্যাডামের পরিবারের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেয়া হবে,” যোগ করেন তিনি। সময় হলে পরিবারের পক্ষ থেকে আবেদন করা হতে পারে বলে জানান মির্জা ফখরুল।

ফখরুল বলেন, বিএসএমএমইউ হাসপাতালের ডাক্তাররা যেটা চিকিৎসা দিয়েছিলেন সেটাকেই ফলোআপ করছেন এখন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকেরা। করোনাভাইরাসের কারণে তিনি উন্নত কোনো চিকিৎসা নিতে পারেননি।

প্রসঙ্গত, দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত হয়ে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি কারাগারে যান খালেদা জিয়া। দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর গত ২৫ মার্চ সরকারের নির্বাহী আদেশে ছয় মাসের জন্য সাজা স্থগিত করে মুক্তি দেওয়া হয় বিএনপি প্রধানকে। সাজা স্থগিতাদেশের সেই মেয়াদ শেষ হবে আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর।

মুক্তির পর থেকে গুলশানের বাসা ‘ফিরোজাতে’ রয়েছেন বিভিন্ন শারীরিক সমস্যায় আক্রান্ত ৭৫ বছর বয়সী খালেদা জিয়া। বাইরে থেকে শুধু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা গিয়ে তার শারীরিক অবস্থার খোঁজ-খবর নেওয়া ও চিকিৎসার বন্দোবস্ত দিচ্ছেন। খালেদা জিয়া আর্থারাইটিসের ব্যথা, ডায়াবেটিস, চোখের সমস্যাসহ বার্ধক্যজনিত নানা সমস্যায় ভুগছেন।