সংবাদ শিরোনাম
লালমনিরহাটে ট্রাকের ধাক্কায় ট্রেন ধরাশায়ী! | ‘দেশের সবগুলো নদী খনন করে বাঁধ নির্মাণ করা হবে’- পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী | শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে মাগুরায় দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ | “সৃষ্টিকর্তার রহমতে বাংলাদেশে ব্যাপক হারে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ হয়নি” | ভারতের ভ্যাকসিন সমগ্র মানবজাতির কল্যাণে ব্যয় করা হবে: মোদি | ‘সিগারেট খেয়েছি, ড্রাগস নয়..ড্রাগস নিত সুশান্ত’- সারা আলী খান | ৫ অক্টোবর ঢাকায় আসছেন ভারতের নতুন হাইকমিশনার | পাবনা-৪ আসন উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নুরুজ্জামান বিশ্বাস বিজয়ী | ‘বাংলাদেশের বিপুল পরিমাণ ভ্যাকসিন উৎপাদনের সক্ষমতা রয়েছে’- শেখ হাসিনা | ‘মিয়ানমারকেই রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে হবে’- প্রধানমন্ত্রী |
  • আজ ১২ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বাম্পার ফলন হলেও দাম কম থাকায় হতাশ হবিগঞ্জের লেবু চাষিরা

৭:১৩ অপরাহ্ণ | সোমবার, আগস্ট ১০, ২০২০ সিলেট
lebuu

মঈনুল হাসান রতন, হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ লেবুর বাম্পার ফলন হলেও দাম কম থাকায় হতাশ হবিগঞ্জের চাষিরা। বড় সাইজের এক হাজার লেবু বিক্রি হচ্ছে ১৫০০ থেকে ১৬০০ টাকায়। আর ছোট সাইজের এক হাজার লেবু বিক্রি হয়েছে ৬০০ থেকে ৭০০ টাকায়।

আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবার হবিগঞ্জের পাহাড়ে লেবুর ফলন ভালো হয়েছে। জেলার চুনারুঘাট, নবীগঞ্জ, বাহুবল ও মাধবপুর উপজেলার বিশাল এলাকাজুড়ে একের পর এক দাঁড়িয়ে আছে পাহাড়ি টিলা। টিলার ওপর থেকে নিচ পর্যন্ত শুধু লেবু গাছ। গাছে গাছে ঝুলছে লেবু।

লেবু চাষিরা জানান, সারা বছরই লেবু হয়। তবে বর্ষায় লেবুর ফলন তুলনামূলক বেশি। শুষ্ক মৌসুমে সেচ দিলেও লেবুর ভালো ফলন পাওয়া যায়। তাই পাহাড়ি এলাকার লোকজন পতিত জমি ফেলে না রেখে লেবু চাষ করছেন। কলম চারায় রোপনের বছরই ধরছে লেবু। আবার লেবু গাছের ফাঁকে ফাঁকে কলা, পেঁপে, মরিচ, কাঁঠাল গাছও লাগিয়েছেন অনেকে।

হবিগঞ্জ কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, জেলায় প্রায় ৬ হাজার একর জমিতে লেবু চাষ হচ্ছে। প্রতি একরে ৮ থেকে ১০ মেট্রিক টন লেবু উৎপাদন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। লেবু চাষকে কেন্দ্র করে জেলার মুছাই ও মিরপুরে প্রায় ১০টি আড়ত গড়ে উঠেছে। নতুন করে আরো কিছু আড়ৎ গড়ে উঠছে। চাষিরা বাগান থেকে লেবু সংগ্রহ করে এসব আড়তে নিয়ে যান। সেখান থেকে পাইকারি ব্যবসায়ীরা লেবু কিনে দেশের নানা প্রান্তে পাঠান।

বাগান মালিক মর্তুজ আলী বলেন, লেবু চাষে কোনো ঝুঁকি নেই। পাহাড়ি মাটিতে রোপনের বছর যেতেই ফলন পাওয়া যাচ্ছে। গোড়া পরিষ্কার করে অল্প কিছু সার দিলে ভালো ফলন পাওয়া যায়।

তিনি বলেন, এখন লেবুর দাম কম। তবে কোরবানির ঈদকে সামনে লেবুর দাম বাড়ার একটা সম্ভাবনা ছিল। এ আশায় গাছ থেকে কম লেবু সংগ্রহ করা হয়। তবে লাভ হয়নি। যদিও করোনা পরিস্থিতির শুরুতে লেবুর দাম বেশি ছিল। কিন্তু প্রায় দুই মাস হলো দাম কমে গেছে।

আড়ত মালিক সানু মিয়া বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে পরিবহন সমস্যা রয়েছে। ঈদে লেবুর ভালো দাম ওঠার সম্ভাবনা ছিল। কিন্তু এবার তাও হলো না।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের অতিরিক্ত উপপরিচালক (শস্য) মো. জালাল উদ্দিন বলেন, হবিগঞ্জের পাহাড়ি এলাকায় সম্ভাবনাময় ফসল লেবু। আমরা লেবু চাষিদের নিয়মিত পরামর্শ দিচ্ছি। তারা লেবুর ভালো ফলনও পাচ্ছেন। এবার পাহাড়ে লেবুর বাম্পার ফলন হয়েছে। তবে এখন দামটা কিছু কম। সামনে দাম বাড়তে পারে।