সৌদি যুবরাজ সালমানের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রে সমন জারি

৯:৫৫ অপরাহ্ণ | সোমবার, আগস্ট ১০, ২০২০ আন্তর্জাতিক
salman

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের একটি আদালত সমন জারি করেছেন। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের ডিস্ট্রিক্ট অব কলাম্বিয়ার আদালতে সৌদির সাবেক গোয়েন্দা কর্মকর্তা সাদ-আল-জাবিরিকে (৬১) হত্যার চেষ্টা মামলায় তার বিরুদ্ধে সমন জারি করা হয়েছে।

সৌদি যুবরাজ ছাড়াও আরো ১২ জনের নাম উল্লেখ করে সমন জারি করা হয়। এতে বলা হয়, ‘আপনি যদি আদালতের সমন জারির জবাব দিতে ব্যর্থ হন, তাহলে আপনার অনুপস্থিতেই অভিযোগের ব্যাপারে রায় দেওয়া হবে।’

সৌদির সাবেক গোয়েন্দা এজেন্ট সাদ আল-জাবিরি মামলার অভিযোগে বলেছেন, তাকে বেশ কয়েকবার গুপ্তহত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। তবে সেসবের একটিও সফল হয়নি।
কানাডায় হিট স্কোয়াড টিম পাঠিয়ে সাদ তাকে হত্যাচেষ্টা করা হয়েছিল উল্লেখ করে শুক্রবার ওই মামলা করেন জাবিরি।

সৌদি আরবের সাবেক এ গোয়েন্দা কর্মকর্তা ২০১৭ সাল থেকে কানাডায় নির্বাসিত রয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন এবং পশ্চিমা বিশ্বের অনেক দেশের গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে সৌদি আরবের মধ্যস্থতাকারী হিসেবে কাজ করতেন তিনি।

রাজপরিবারের সম্ভাব্য প্রধান টার্গেটে পরিণত হয়েছেন বলে সৌদি যুবরাজের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণকারী ও অন্যান্য গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা সাদ আল-জাবরিকে সতর্ক করে দেওয়ার পর কানাডায় তাঁর নিরাপত্তা বৃদ্ধি করা হয়েছে। পুলিশের পাশাপাশি ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষীর সংখ্যাও বাড়ানো হয়েছে।

মামলায় বলা হয়েছে, ‘ড. সাদের মন ও স্মৃতিশক্তি অপেক্ষা বিন সালমান সম্পর্কে এত অপমানজনক, সংবেদনশীল এবং ভয়াবহ তথ্য খুব কম জায়গাতেই রয়েছে। যে কারণে অভিযুক্ত সালমান গোয়েন্দা এজেন্ট জাবরিকে মৃত দেখতে চান।’

সৌদি আরবে বিরোধীদের দমনে ব্যাপক ধরপাকড় অভিযান শুরু হওয়ার পর ২০১৭ সালে তুরস্ক হয়ে কানাডায় পাড়ি জমান আল-জাবরি। যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান স্বেচ্ছানির্বাসিত সাবেক এই গোয়েন্দা কর্মকর্তাকে দেশে ফেরানোর চেষ্টা করছেন। জাবরি সৌদির আরেক যুবরাজ মোহাম্মদ বিন নায়েফের অধীনে করেছিলেন। যাকে প্রিন্স সালমান ২০১৭ সালে বহিষ্কার করে।

উল্লেখ্য সমন হলো আপনার নামে কেউ যদি মামলা করে, বা আপনি যদি কোন মামলার সাক্ষী হন তাহলে আদালত থেকে আপনার নামে যে পত্র আসবে সেটি।