সংবাদ শিরোনাম
লালমনিরহাটে ট্রাকের ধাক্কায় ট্রেন ধরাশায়ী! | ‘দেশের সবগুলো নদী খনন করে বাঁধ নির্মাণ করা হবে’- পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী | শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে মাগুরায় দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ | “সৃষ্টিকর্তার রহমতে বাংলাদেশে ব্যাপক হারে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ হয়নি” | ভারতের ভ্যাকসিন সমগ্র মানবজাতির কল্যাণে ব্যয় করা হবে: মোদি | ‘সিগারেট খেয়েছি, ড্রাগস নয়..ড্রাগস নিত সুশান্ত’- সারা আলী খান | ৫ অক্টোবর ঢাকায় আসছেন ভারতের নতুন হাইকমিশনার | পাবনা-৪ আসন উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নুরুজ্জামান বিশ্বাস বিজয়ী | ‘বাংলাদেশের বিপুল পরিমাণ ভ্যাকসিন উৎপাদনের সক্ষমতা রয়েছে’- শেখ হাসিনা | ‘মিয়ানমারকেই রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে হবে’- প্রধানমন্ত্রী |
  • আজ ১২ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

উত্তরা থেকে সাত রাস্তা পর্যন্ত কোনো ট্রাফিক সিগন্যাল থাকবে না

৪:২৩ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, আগস্ট ১১, ২০২০ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- রাজধানীর সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ তেজগাঁও সাতরাস্তা মোড় হতে উত্তরা হাউজ বিল্ডিং পর্যন্ত ট্রাফিক সিগনালমুক্ত যানবাহন চলাচলে চালু হবে ইউলুপ। কোন রকম সিগনাল ছাড়াই পূর্ণ গতিতেই চলবে সব ধরণের সড়ক যান। এজন্য সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে “ঢাকার তেজগাঁও সাতরাস্তা মোড় থেকে উত্তরা হাউজ বিল্ডিং পর্যন্ত ১১টি ইউটার্ন নির্মাণ প্রকল্প।” এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন।

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) দুপুরে ইউলুপ নির্মাণ কাজের অগ্রগতি দেখতে যান ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

পরিদর্শনকালে কাওলা এলাকার ৩ নং ইউলুপ নির্মাণ স্থানে মেয়র বলেন, ‘ঢাকার উত্তরের সঙ্গে দক্ষিণের যাতায়াতে কয়েকটি মোড়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। আমরা সেই যানজট দূর করার উদ্যোগ নিয়েছি। কোনও ধরনের ট্রাফিক সিগন্যাল ছাড়াই এই উত্তরা থেকে সাত রাস্তা পর্যন্ত যানবাহন চলবে।’

তিনি বলেন, মেয়র আনিসুল হক মারা যাওয়া পর প্রকল্পটি প্রায় বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। আমি এসে এটা নতুনভাবে উদ্যোগ নিয়েছি। এরইমধ্যে আমাদের প্রকৌশল বিভাগসহ সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছি এটি হবে আমাদের অগ্রাধিকারমূলক প্রকল্প। চলতি বছরের ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে সকল ইউলুপ নির্মাণ শেষ করা হবে।

আতিকুল ইসলাম বলেন, এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে পারলে উত্তরা থেকে নাবিস্কো পর্যন্ত চলাচলে যে সময় ব্যয় হতো তার ৭৫ ভাগ সময় সাশ্রয় হবে। আমরা সর্বাত্নক চেষ্টা করছি ডিসেম্বরের মধ্যে কাজ শেষ করতে। এটি হলে জনগণ উপকৃত হবে। আমরা বলেছি সকল ভাল কাজ সেগুলো বন্ধ রাখা যাবে না।

এসময় মেয়রের সঙ্গে ছিলেন ডিএনসিসির প্রধান প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল হাই, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহ: আমিরুল ইসলাম, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (অতিরিক্ত দায়িত্ব) সিভিল সার্কেল খন্দকার মাহাবুব আলম প্রমুখ।