সংবাদ শিরোনাম
লালমনিরহাটে ট্রাকের ধাক্কায় ট্রেন ধরাশায়ী! | ‘দেশের সবগুলো নদী খনন করে বাঁধ নির্মাণ করা হবে’- পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী | শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে মাগুরায় দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ | “সৃষ্টিকর্তার রহমতে বাংলাদেশে ব্যাপক হারে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ হয়নি” | ভারতের ভ্যাকসিন সমগ্র মানবজাতির কল্যাণে ব্যয় করা হবে: মোদি | ‘সিগারেট খেয়েছি, ড্রাগস নয়..ড্রাগস নিত সুশান্ত’- সারা আলী খান | ৫ অক্টোবর ঢাকায় আসছেন ভারতের নতুন হাইকমিশনার | পাবনা-৪ আসন উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নুরুজ্জামান বিশ্বাস বিজয়ী | ‘বাংলাদেশের বিপুল পরিমাণ ভ্যাকসিন উৎপাদনের সক্ষমতা রয়েছে’- শেখ হাসিনা | ‘মিয়ানমারকেই রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে হবে’- প্রধানমন্ত্রী |
  • আজ ১২ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে এবার নিজ দেশের নাগরিককে গুলি করে মারল বিএসএফ

৪:৩৩ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, আগস্ট ১১, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত বরাবর কোচবিহারে বিএসএফের সৈন্যদের গুলিতে ভারতীয় এক নাগরিক নিহত হয়েছেন। গরু পাচারকারী সন্দেহে ওই তরুণকে গুলি করে হত্যা করা হয়। তবে নিজ দেশে নাগরিককে হত্যার প্রতিবাদ জানিয়েছেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ।

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি পুলিশের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, রোববার রাতে কোচবিহার জেলার তুফানগঞ্জ এলাকার একটি গ্রামে গবাদিপশু পাচারকারীদের ধড়পাকড়ের সময় এক বিএসএফ কর্মী শাহিনুর হককে গুলি করে হত্যা করে।

এ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তারা বিএসএফ কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন।

এদিকে ঘটনার পর উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ মঙ্গলবার সকালে ওই গ্রামে গেছেন। মন্ত্রী পিটিআইকে জানিয়েছেন, তিনি বিষয়টি উচ্চতর কর্তৃপক্ষের কাছে তুলে ধরবেন।

তিনি বলেছেন, গবাদি পশু পাচারকারী ছিল এই সন্দেহের ভিত্তিতে কাউকে মেরে ফেলতে পারে না বিএসএফ। যদি কোনো ব্যক্তি হাতেনাতে ধরা পড়ে তবে আপনারা পদক্ষেপ নেন। কেবল সন্দেহের ভিত্তিতে কাউকে গুলি করতে পারেন না। বিষয়টি আমরা উচ্চতর কর্তৃপক্ষের কাছে তুলে ধরব।

‘এটা অমানবিক। আগেভাগেই আপনি কাউকে খুন করে ফেলবেন এবং তারপরে অভিযোগ করবেন যে সে গবাদিপশু পাচারকারী, এ হতে পারে না,’ বলেন মন্ত্রী।

এর আগে বিএসএফ’র গুলিতে ভারতীয় যুবক নিহতের খবর ছড়িয়ে পড়লে সোমবার সকাল থেকেই ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে ওঠে এলাকা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় স্থানীয় পুলিশ। পুলিশকে ঘিরেও বিক্ষোভ দেখাতে থাকে স্থানীয় বাসিন্দারা। গ্রামবাসীদের ক্ষোভের মুখে পরে তুফানগঞ্জ থানার পুলিশ। এমনকী পুলিশের সামনেই বিক্ষোভকারীরা একটি অ্যাম্বুলেন্সও ভাঙচুর করে বলে অভিযোগ। তবে বেশ কিছুক্ষণের চেষ্টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। পুলিশ ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপে এদিন সেখান থেকে মৃতদেহ সরিয়ে নিয়ে আসা হয়।