সংবাদ শিরোনাম

টিকা সবাইকে দিয়ে নিই, তারপর আমি নেবো: প্রধানমন্ত্রীসুনামগঞ্জে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী ২ মাসের অন্তঃসত্ত্বা, ১ জন আটকসংঘর্ষ, গোলাগুলি অতঃপর দুই লাশে শেষ হলো চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনরংপুরে ইটভাটায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, ১৯ লাখ টাকা জরিমানানির্বাচন বর্জন করলেন ইসলামী আন্দোলনের মেয়র প্রার্থী জান্নাতুল ইসলামদেশের প্রথম করোনা টিকা নিলেন নার্স রুনুমুন্সিগঞ্জে শিশু ধর্ষণের দায়ে যুবকের যাবজ্জীবনদেশে করোনা টিকা কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রীনজিরবিহীন নির্বাচন, দিনের ভোট রাতে: ইসিতে বিএনপির অভিযোগমাদারীপু‌রে শাহেদ বেগ হত্যা মামলায় দুইজ‌নের মৃত্যুদণ্ড

  • আজ ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

‘কয়েক বছর পর বাংলাদেশের কোথাও নদী ভাঙ্গন থাকবে না’- পানি সম্পদ উপমন্ত্রী

◷ ৯:৫৭ অপরাহ্ন ৷ বুধবার, আগস্ট ১২, ২০২০ ঢাকা
pani

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ শুধু বর্ষা আসলেই জরুরি ভিত্তিতে জিও ব্যাগ ফেলে নদী ভাঙন রোধ করার চেষ্টা নয়, বর্ষার আগেই পর্যায়ক্রমিকভাবে সকল ঝুঁকিপূর্ণ নদী ভাঙন প্রবণ এলাকাতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ফলে আগামী কয়েক বছরের মধ্যে বাংলাদেশের কোথাও আর নদী ভাঙন থাকবে না বলে জানিয়েছেন পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম।

বুধবার (১২ আগস্ট) মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলায় নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণকালে এ কে এম এনামুল হক শামীম একথা বলেন।

এসময় তিনি আরো বলেন, গজারিয়ায় মেঘনা নদীর তীরবর্তী ভাঙ্গন প্রবন দেড় কিলোমিটার এলাকায় স্থায়ী প্রতিরক্ষামূলক বাঁধ নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে প্রয়োজন পড়লে বাঁধের দৈর্ঘ্য আরও বাড়ানো হবে। আগামী বর্ষার আগেই বাঁধ নির্মাণের কাজ শেষ করা হবে বলে জানান তিনি। সমগ্র মুন্সীগঞ্জ জেলায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধীনে ৪৩৪ কোটি টাকার কাজ চলমান উল্লেখ করে তিনি জানান, মুন্সীগঞ্জ শহররক্ষা বাঁধের ভাঙ্গা অংশের মেরামত কাজ দ্রুততম সময়ের মধ্যেই শুরু করা হবে।

উপমন্ত্রী এ কে এম এনামূল হক শামীম ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন শেষে নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত ৩০টি পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন। এসময় প্রত্যেক পরিবারকে ২০ কেজি করে চাল দেওয়া হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাড.মৃণাল কান্তি দাস, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো: সাইফুল ইসলাম, পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আব্দুল মতিন সরকার, গজারিয়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান সাদী, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম ও গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ইকবাল হোসেন প্রমুখ।

পরে জাতির জনকের স্মরণে উপজেলা সহকারী ভূমি কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে একটি অর্জুন গাছের চারা রোপণ করেন।