• আজ ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

“করোনায় অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের পাশে বুটেক্স সাংবাদিক সমিতি”

১০:৪৪ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১৩, ২০২০ শিক্ষাঙ্গন
butex

বুটেক্স প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (বাটেবিসাস) এর উদ্যোগে গঠিত ফান্ডের মাধ্যমে বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় (বুটেক্স) এর ১৫০ অসচ্ছল শিক্ষার্থীকে ২০০০ টাকা করে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করা হয়েছে।

আজ ১৩ ই আগস্ট শিক্ষার্থীদের প্রদানকৃত শিওর ক্যাশ নম্বরে এই টাকা প্রেরণ করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন বাটেবিসাস সভাপতি “আনন্দ দত্ত অমিত”। এই উদ্যোগের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন ফ্যাকাল্টি অফ টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং এর ডীন, ” প্রফেসর ড. হোসনে আরা বেগম”।

বাটেবিসাস সভাপতি, “আনন্দ দত্ত অমিত” জানান, “করোনার এই দুঃসময়ে বুটেক্সের অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের পাশে দাড়ানোর প্রত্যয় থেকেই আমাদের এই উদ্যোগ। আমরা প্রথমে অনলাইন ফর্মের মাধ্যমে আবেদনকৃত শিক্ষার্থীদের তালিকা তৈরী করি। পরবর্তীতে প্রত্যেক বিভাগের বিভাগীয় প্রধানের মাধ্যমে আমরা স্ব-স্ব কোর্স কো-অর্ডিনেটরের কাছে তথ্য প্রদান করি এবং তারা শিক্ষার্থীদের তথ্য যাচাই করে চূড়ান্ত তালিকা তৈরী করেন। সেই তালিকা অনুযায়ী ইতোপূর্বে “ইয়ার্ন ইঞ্জিনিয়ারিং”, “ফেব্রিক ইঞ্জিনিয়ারিং” এবং “এনভায়রনমেন্টাল সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং” বিভাগের শিক্ষার্থীদের বিকাশ একাউন্টে ২০০০ টাকা করে প্রেরণ করা হয় এবং আজ বাকি বিভাগের শিক্ষার্থীদের কে তাদের শিওর ক্যাশ একাউন্টে একই পরিমাণ টাকা প্রেরণ করা হয়।

এই ব্যাপারে “প্রফেসর ড. হোসনে আরা বেগম” সময়ের কন্ঠস্বর কে বলেন, “এমন বিপদের সময় সবারই সহযোগিতার হাত বাড়ানো প্রয়োজন। বুটেক্সে অনেক অসচ্ছল পরিবারের শিক্ষার্থী আছে, যাদের এই সময়ে অার্থিক সাহায্য প্রয়োজন”। এই কাজে আপনার এগিয়ে আসার কারণ কি? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, “আমরা ক্লাসে শিক্ষার্থীদের মানবিক হতে বলি, কিন্তু আমরা নিজেরা যদি মানবিক না হই তাহলে তারাও মানবিকতা শিখবে না। এখন তাদের সহযোগিতা করার কারণ কর্মজীবনে যখন তাদের অধীনে অনেক মানুষ কাজ করবে, তখন যেন তারা তাদের বিপদে সহযোগিতা করতে পারে। সর্বোপরি শিক্ষার্থীদের মানবিক গুণাবলী বিকশিত করার জন্যই এই উদ্যোগে আমি এগিয়ে আসি”।

তিনি আরো বলেন, “সাধারণ সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে যাতায়াতের যে খরচ হতো, সেই টাকা দিয়েও একজন ছাত্রকে সহযোগিতা করা সম্ভব। তাই আমি নিজে, অন্যন্য শিক্ষক এবং আমার প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে ফান্ড গঠনে সর্বাত্ত্বক সহযোগিতা করি”।

বাটেবিসাস সভাপতি আরো জানান, “আমাদের অবস্থান থেকে আমরা সততার সাথে সম্পূর্ণ কার্যক্রম পরিচালনা করার চেষ্টা করেছি। এই অর্থ দিয়ে হয়তো শিক্ষার্থীদের তেমন কিছু হবে না, তবে আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি”। তিনি আরো বলেন, “আমাদের কার্যক্রম এখানেই শেষ নয়, অনলাইন ক্লাস করার জন্য স্মার্টফোন নেই এমন কিছু শিক্ষার্থীকে স্মার্টফোন কেনার অর্থ প্রদানের পরিকল্পনা আমাদের আছে”।

এসময় তিনি বুটেক্স উপাচার্য, ” ড. মোঃ আবুল কাশেম”, টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং ফ্যাকাল্টির ডীন, “প্রফেসর ড. হোসনে আরা বেগম”, ডাইস এন্ড কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান, “প্রফেসর ড. মোঃ ফরহাদ হোসেন” সহ বুটেক্সের প্রাক্তন শিক্ষার্থী এবং বিভিন্ন এলামনাই সংগঠন কে ফান্ড গঠনে সার্বিক সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জানান।

বুটেক্স সাংবাদিক সমিতির সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক, “সাবাইম ইসলাম” সময়ের কণ্ঠস্বর কে জানান, “এই কঠিন পরিস্থিতিতে আমরা শুধু সাংবাদিক সংগঠনের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকতে চাইনি, পাশাপাশি আমরা মানবিক সংগঠন হওয়ারও চেষ্টা করেছি। সেই চেষ্টা থেকেই শিক্ষার্থীদের সহায়তা করার জন্য আমাদের এই উদ্যোগ। সহযোগিতার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের আত্নসম্মানের কথা বিবেচনা করে সাহায্যপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের তালিকা সম্পূর্ণরুপে গোপন রাখা হয়েছে। আমরা বিশ্বাস করি, সকলের সহযোগিতাই গড়তে পারে একটা সুন্দর পৃথিবী”।