সময়ের কণ্ঠস্বরে সংবাদ প্রকাশ: শিক্ষার্থীদের সতর্ক বার্তা দিলো তেজগাঁও কলেজ

১১:৩২ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১৩, ২০২০ ঢাকা, দেশের খবর, শিক্ষাঙ্গন

রবিউল ইসলাম, সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা দেওয়ার কথা বলে কৌশলে বিকাশের মাধ্যমে টাকা আদায় করত এক প্রতারক চক্র। এমন তথ্যে বহুল প্রচারিত অনলাইন নিউজ পোর্টাল সময়ের কণ্ঠস্বরে “তেজগাঁও কলেজের নাম ভাঙিয়ে শিক্ষার্থীদের সাথে অভিনব ‘প্রতারণা’” শিরোনামে গত ১২ আগস্ট একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। পরে কলেজ কর্তৃপক্ষ সংবাদের সত্যতা পেয়ে প্রত্যেক শিক্ষার্থীদের মোবাইল ফোনে একটি সতর্কমূলক ক্ষুদে বার্তা প্রেরণ করে।

বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) প্রেরিত ক্ষুদে বার্তায় তেজগাঁও কলেজের অধ্যক্ষের বরাত দিয়ে জানানো হয়, “তেজগাঁও কলেজের শিক্ষার্থীদের এই মর্মে সর্তক করা যাচ্ছে যে, একটি প্রতারক চক্র বৃত্তির টাকা প্রাপ্তির কথা বলে বিকাশের মাধ্যমে টাকা প্রেরণের কথা বলছে। এ সংক্রান্ত যেকোনো ধরণের আর্থিক লেনদেন থেকে বিরত থাকার জন্য বলা হলো।”

জানতে চাইলে তেজগাঁও কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল অধ্যাপক মোঃ হারুন অর রশিদ বৃহস্পতিবার রাতে সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, সংবাদ প্রকাশের পরই শিক্ষার্থীদের মোবাইলে কলেজ থেকে একটি সতর্কমূলক ক্ষুদে বার্তা পাঠানো হয়েছে, যাতে তারা এ ধরণের লেনদেন হতে বিরত থাকে। এছাড়া তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এবং এ ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

উল্লেখ্য, তেজগাঁও কলেজের যে শিক্ষার্থীরা উপবৃত্তির টাকা পায় বা পেয়েছে, প্রতারকরা এমন সকল শিক্ষার্থীদের সাথে সম্প্রতি মোবাইলে যোগাযোগ করে প্রথমে শিক্ষার্থীদের বাবা-মায়ের নামসহ ব্যক্তিগত সকল তথ্য জানায়। পরে কলেজের অধ্যক্ষ পরিচয় দিয়ে কথা বলে কৌশলে বিকাশের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে একটি প্রতারক চক্র।

ভুক্তভোগীদের প্রশ্ন, শিক্ষার্থীদের ব্যক্তিগত সকল তথ্য কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে থাকার কথা। সেখানে থেকে এসব তথ্য বাইরে গেল কিভাবে? তাদের ধারণা, এর সঙ্গে হয়তো প্রতিষ্ঠানটির কোনো কর্মকর্তা বা কর্মচারীর যোগসাজশ থাকতে পারে।

তবে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ‘শিক্ষার্থীদের ব্যক্তিগত তথ্য শুধু কলেজ নয়, বোর্ডসহ একাধিক জায়গায় থাকে। তারপরও এই প্রতারণার সঙ্গে যদি প্রতিষ্ঠানের কেউ জড়িত থাকে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’