• আজ ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশে ভারতের পরবর্তী হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী, রীভা ফিরছেন দিল্লিতে

৪:৫৪ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, আগস্ট ১৪, ২০২০ স্পট লাইট
ind

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ বাংলাদেশে ভারতের নতুন হাইকমিশনার হচ্ছেন বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী। বর্তমান হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাসের স্থলাভিষিক্ত হবেন তিনি। রীভা গাঙ্গুলী ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (পূর্ব) হিসেবে যোগ দিচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তিতে এই নিয়োগের কথা জানায়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, অতিরিক্ত সচিব বিক্রম কুমার দোরাইস্বামীকে বাংলাদেশে পরবর্তী ভারতীয় হাইকমিশনার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। শিগগিরই তিনি এই দায়িত্ব বুঝে নেবেন।

বিক্রম দোরাইস্বামী ভারতের ফরেন সার্ভিসের ১৯৯২ ব্যাচের কর্মকর্তা। তিনি বর্তমানে অতিরিক্ত সচিব পদমর্যাদার কর্মকর্তা। এর আগে তিনি ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বাংলাদেশ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত যুগ্ম সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। শিগগিরই ঢাকায় তার কর্মস্থলে যোগ দেয়ার কথা রয়েছে। তিনি হবেন ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের ১৭তম হাইকমিশনার।

মনমোহন সিং ভারতের প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে তার ব্যক্তিগত সচিবের দায়িত্ব পালন করেছেন বিক্রম দোরাইস্বামী। সেখান থেকে তিনি দক্ষিণ কোরিয়ায় ভারতের রাষ্ট্রদূত নিযুক্ত হন। বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্কের বিষয়ে দোরাইস্বামী বেশ অভিজ্ঞ।

কারণ ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার ডেস্কে তিনি যুগ্ম সচিবের দায়িত্ব পালন করেছেন। বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে বিভিন্ন বৈঠকে তিনি তার দেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। ভারতের তামিলনাড়ু অঞ্চলের দোরাইস্বামী সম্প্রদায়ের বিক্রম হিন্দি ও ইংরেজির পাশাপাশি বাংলা ভাষাও জানেন। কারণ তার স্ত্রী একজন বাঙালি।

এদিকে ঢাকা ছাড়ার প্রস্তুতিও এরই মধ্যে নিতে শুরু করেছেন বিদায়ী ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ। ঈদের আগে ২৮ জুলাই তিনি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। গত ৬ আগস্ট তিনি বিদায়ী সাক্ষাৎ করেন মন্ত্রিসভার জ্যেষ্ঠ সদস্য মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হকের সঙ্গে। এর ধারাবাহিকতায় ১০ আগস্ট সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদের সঙ্গে মন্ত্রণালয়ে তার কার্যালয়ে বিদায়ী সাক্ষাৎ করেন রীভা।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ভারতের বিদায়ী হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাস। সাক্ষাৎ শেষে তিনি বলেন, ‘ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক স্বাভাবিক আছে। আমরা কোভিডের মধ্যেও একসাথে কাজ করেছি। সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ হওয়ার কারণেই হয়েছে। এখানে ট্রেড ট্রেন চলছে। সাপ্লাই চেইন ঠিক আছে জানিয়ে রীভা গাঙ্গুলী বলেন, এখানে অনেকগুলো চুক্তি হয়েছে। একসাথে অনেকগুলো প্রজেক্ট করেছি। এটি দুদেশের জন্য উইন উইন অবস্থান। আমাদের ট্রেড বাড়বে। এটাতে বাংলাদেশেরও লাভ হবে, কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে।’

এসময় নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ভারতের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক অত্যন্ত সুস্থ ও সবল আছে। মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের সঙ্গে যে সম্পর্ক তৈরি হয়েছে সেটি রক্তের সম্পর্ক। এ সম্পর্ক কখনোই দুর্বল হওয়ার নয়।

রীভা গাঙ্গুলি দাশের আগে ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনার হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা। বাংলাদেশে দায়িত্ব পালন শেষে তিনি আমেরিকায় ভারতীয় রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিযুক্ত হন। গত জানুয়ারি থেকে তিনি ভারতের ৩৩তম পররাষ্ট্র সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।