মুজিব বর্ষে এক চিত্রকরের ভিন্নধর্মী উদ্যোগ

১১:৫৯ অপরাহ্ণ | শনিবার, আগস্ট ১৫, ২০২০ ফিচার
nolita

মিজানুর রহমান, নালিতাবাড়ী, শেরপুর প্রতিনিধিঃ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকীতে একশত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর লোগো অঙ্কন করার লক্ষে নালিতাবাড়ী উপজেলার চিত্রকর বাদশা মিয়া (২৮) ভিন্ন এক উদ্যোগ নিয়েছেন।

বিভিন্ন বিদ্যালয়ে নিজ উদ্যোগে তিনি বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর লোগো এঁকে বেড়াচ্ছেন। তাঁর স্বপ্ন বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিধন্য টুঙ্গিপাড়া গিমাডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে লোগোটি আঁকার মাধ্যমে কার্যক্রম সমাপ্ত করা।

বাদশা মিয়ার বাড়ি শেরপুরের নালিতাবাড়ী শহরের গড়কান্দা মহল্লায়। ছোটবেলা থেকেই জীবিকার সন্ধানে আর্টকে পেশা হিসেবে বেছে নেন তিনি। রং আর তুলির ছোঁয়ায় ব্যানার, সাইনবোর্ড ইত্যাদি লিখে চলে তাঁর সংসার। তাঁর আর্ট সেন্টারের নাম ‘চিত্রকর বাদশা’।

ছোটবেলা থেকেই বঙ্গবন্ধুর প্রতি অসীম ভালোবাসা ছিল বাদশার। তাই বঙ্গবন্ধুকে ভালোবেসে কিছু করার জন্য সব সময় চেষ্টা করতেন তিনি। অবশেষে তিনি সেই সুযোগ পান। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে লোগোটি নিজ উদ্যোগে অঙ্কনের পরিকল্পনা করেন তিনি।

চিত্রকর বাদশা ১০০ টি বিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর লোগো এঁকে যাচ্ছেন। তাঁর স্বপ্ন, যে জমিনে লেগে আছে বঙ্গবন্ধুর পদচিহ্ন, সহপাঠিদের নিয়ে খেলা করেছেন সারাক্ষণ সেই টুঙ্গিপাড়া গিমাডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে লোগোটি আঁকার মাধ্যমে কার্যক্রম সমাপ্ত করা।

১১ মার্চ থেকে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর লোগো আঁকা শুরু করেন বাদশা মিয়া। এখন পর্যন্ত তিনি ৪২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে লোগো অঙ্কন করেছেন। তাঁর লক্ষ্য প্রথমে উপজেলার সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে লোগো আঁকা শেষ করা। পরবর্তীতে জেলার বাকি উপজেলার বিদ্যালয় গুলোতেও লোগো অঙ্কন করা। সবশেষে স্বপ্নের সেই টুঙ্গিপাড়া গিমাডাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে চিত্রকর বাদশা বলেন, সকলের অনুপ্রেরণা, দোয়া ও সহযোগিতায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আমার সাধ্যমতো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর লোগো আঁকার উদ্যোগ নিয়েছি। ৪২টি প্রতিষ্ঠানে লোগো আঁকা শেষ হয়েছে। সবশেষে পিতা মুজিবের সেই মহান স্মৃতি বিজরিত টুঙ্গিপাড়ায় লোগো অঙ্কণ করে শেষ করতে চাই। তিনি দেশবাসীসহ প্রশাসনিক সহযোগিতা কামনা করেন।