দেশে তৈরি প্রথম কভিড-১৯ ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেটের মেধাস্বত্ত্বের স্বীকৃতি দিলো চীন

⏱ ১:২৭ অপরাহ্ন | সোমবার, আগস্ট ১৭, ২০২০ 📂 আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষায় সফলতা পাওয়ার পর নিজেদের তৈরি একটি ভ্যাকসিনের পেটেন্ট (মেধাস্বত্ত্বের স্বীকৃতি) দিয়েছে চীন। চায়না গ্লোবাল টেলিভিশন নেটওয়ার্কের (সিজিটিএন) ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, প্যাটেন্টের অনুমোদন দিয়েছে চীনের National Intellectual Property Administration।

চীনা সংবাদমাধ্যমের শিরোনামে বলা হয়েছে, দেশে তৈরি একটি ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেটকে (Ad5-nCoV) প্যাটেন্ট (মেধাস্বত্ত্বের স্বীকৃতি) অনুমোদন দেয়া হয়েছে। Ad5-nCoV ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট যে প্রতিষ্ঠান তৈরি করছে সেটির মালিকানা এই প্যাটেন্ট প্রাপ্তির মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হবে।

চীনের আরেকটি সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমস এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনে জানিয়েছে, Ad5-nCoV এর মেধাস্বত্ত্বের স্বীকৃতি পেয়েছে প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান CanSino. ভ্যাকসিনটি বর্তমানে ফেইজ থ্রি ট্রায়াল শুরুর পথে আছে বলেও জানানো হয় এই প্রতিবেদনে।

সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমস জানিয়েছে, চীনের সেনাবাহিনীর সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ চেন ওয়ের দল এবং স্যানসিনো বায়োলজিকস যৌথভাবে ভ্যাকসিনটি তৈরি করেছে । ‘এড৫-এনসিওভি’ নামের ভ্যাকসিনটি রবিবারই নিবন্ধন করেছে বেইজিং।

এদিকে আমেরিকান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন জার্নালে প্রকাশিত ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের তথ্যের বরাত দিয়ে সিনহুয়া নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে, করোনার এই ভ্যাকসিনটি নিরাপদ ও প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করেছে। প্রথম ধাপের ট্রায়ালে ১৮ থেকে ৫৯ বছর বয়সী ৩২০ জন স্বাস্থ্যবান স্বেচ্ছাসেবক অংশ নিয়েছিলেন। আর দ্বিতীয় ধাপে ২২৪ জন স্বেচ্ছাসেবক অংশ নিয়েছিলেন।

এর আগে করোনার প্রথম ভ্যাকসিনের নিবন্ধন করে রাশিয়া। রোববার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, তারা এরই মধ্যে করোনার ভ্যাকসিন তৈরি করা শুরু করে দিয়েছে। তাদের করোনার ভ্যাকসিনটি প্রথম প্রয়োগ করা হবে চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীর শরীরে।