🌏 সংবাদ শিরোনাম

আসামির পক্ষ নেওয়ার অভিযোগে বগুড়ায় ধর্ষণ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ক্লোজড | মালয়েশিয়ায় দ্বিতীয়বার ভিপি হওয়ার লড়াইয়ে বাংলাদেশের বশির | লালমনিরহাটে সড়ক দুর্ঘটনায় স্ত্রী নিহত, স্বামীসহ আহত ১০ | শাহজাদপুরে কিশোরীকে ‘ধর্ষণ’ করে কিশোর, ভিডিও ধারণ বন্ধুদের | সম্মিলিত ইসলামী জোট সভাপতির বিরুদ্ধে মামলা | ফেনীতে বিধবা মহিলার ধান কেটে দিলো স্বেচ্ছাসেবক লীগ | ৬১ পৌরসভা নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা | সিরাজগঞ্জে এসইপি বাস্তবায়ন অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত | মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ সফরের সম্মতি দিয়েছেন এরদোয়ান: তথ্যমন্ত্রী | বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে করোনা টিকার অনুমোদন দিলো যুক্তরাজ্য |

  • আজ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
  • f

পদ্মায় বিলীন হলো শিবচরের আরও একটি স্কুলভবন

⏱ ১২:৫০ অপরাহ্ন | বুধবার, আগস্ট ১৯, ২০২০ 📂 ঢাকা, দেশের খবর

মেহেদী হাসান সোহাগ, স্টাফ রিপোর্টার, মাদারীপুর- পদ্মার ভাঙনে মাদারীপুর জেলার শিবচরের চরাঞ্চলের আরো একটি স্কুল ভবন নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।

মঙ্গলবার (১৮ আগষ্ট) দিবাগত রাত সাড়ে ১১ টার দিকে বন্দরখোলা ইউনিয়নের কাজীরসূরা ২৬ নং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কাম সাইক্লোন সেল্টারটি নদীগর্ভে চলে যায়। বন্যার প্রথম দিকে এই বিদ্যালয়টিতে ওই এলাকার অসংখ্য মানুষ আশ্রয় নিয়েছিল।

এ বছরের বন্যায় একই ইউনিয়নের নুরুদ্দিন মাদবরকান্দি এস ই এস ডি পি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩ তলা ভবনটি নদীতে বিলীন হয়েছে। এছাড়াও চলতি বছরের বন্যায় চরজানাজাত ইউনিয়নের ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের একাধিক স্থাপনা ও ইউনিয়ন পরিষদ, কাঁঠালবাড়ি ইউনিয়নের ৭৭ নং কাঁঠালবাড়ি সরকারী বিদ্যালয় কাম সাইক্লোন সেন্টারের ৩ তলা ভবনটিও বিলীন হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বন্দরখোলা ইউনিয়নের কাজিরসূরা এলাকাটি পদ্মার ভাঙনের ঝুঁকিতে রয়েছে। গতরাতে বিদ্যালয়টি নদীতে চলে গেলে চরম আতঙ্ক দেখা দিয়েছে স্থানীয়দের মধ্যে। নদীগর্ভে বিলীন হওয়া বিদ্যালয়টির পাশেই রয়েছে একটি কমিউনিটি ক্লিনিক, বন্দরখোলা ইউনিয়ন পরিষদ ভবন ও কাজীরসুরা বাজারের দোকানপাট।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত তিন/চারদিন ধরে আবারো পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে পদ্মায়। ভাঙন বৃদ্ধি পেয়েছে পদ্মার চরাঞ্চলে। গত রাতে ভেঙে যাওয়া বিদ্যালয়টিতে চরের ২ শতাধিক শিক্ষার্থী লেখাপড়া করতো। বিদ্যালয়টির আশেপাশের স্থাপনাগুলো ভাঙনের ঝুঁকিতে থাকায় এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

২৬ নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আইয়ুব আলী জানান, ‘মঙ্গলবার গভীর রাতে স্কুল ভবনটি নদীতে বিলীন হয়েছে। বিকেলেও ইউএনও, ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান স্কুল পরিদর্শন করেছিল। তখনও স্কুলটি ছিল। বিদ্যালয়টি ভেঙে যাওয়ায় শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া চরমভাবে ব্যাহত হবে।’