সংবাদ শিরোনাম

এরদোয়ানের বিরুদ্ধে ব্যর্থ অভ্যুত্থান: আদালতের রায়ে ৩৩৭ জনের যাবজ্জীবন | আলী যাকেরের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক | সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আলী যাকের আর নেই | করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ ফরিদপুরের ঐতিহ্যবাহী শীতল পাটি শিল্প | করোনায় বন্ধ হলো বিশ্বের বৃহত্তম পিপিই কিট এবং গ্লাভস তৈরির কারখানা! | ঝালকাঠি পৌরসভার ২২ কর্মচারীর বিরুদ্ধে মেয়রের স্বাক্ষর জাল করার অভিযোগ | আর্জেন্টিনাকে বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন দেখানো কোচ হাসপাতালে | ৬ দিনের মাথায় বসতে যাচ্ছে পদ্মাসেতুর ৩৯তম স্প্যান | বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬ কোটি ছাড়িয়েছে | "দরিদ্রদের জন্য স্বাস্থ্যসম্মত টয়লেট নির্মাণ করবে সরকার" |

  • আজ ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ পেয়ে খুশি শ্রিংলা

১০:৩১ অপরাহ্ন | বুধবার, আগস্ট ১৯, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ
hasina

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেছেন, ‘ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্কে কোনো দূরত্ব তৈরি হয়েছে বলে আমি মনে করি না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকে তা স্পষ্ট হয়েছে। এই করোনা ভাইরাসের মধ্যেও তিনি আমাকে সাক্ষাৎ দিয়েছেন, এতে আমি খুশি।

দু’দিনের সফরের শেষ ভাগে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের সাথে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের পর তিনি এ মন্তব্য করেন। বৈঠকের আলোচনায় কভিড-১৯ টিকা ইস্যুটি প্রাধান্য পায়।

নগরীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে তার প্রতিপক্ষের সাথে বৈঠক থেকে বেরিয়ে এসে সংবাদ কর্মীদের তিনি বলেন, আমি একটি খুব সন্তোষজনক, খুব সংক্ষিপ্ত সফর সম্পন্ন করলাম।

তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯-এর টিকা উদ্ভাবনের দৌড়ে শীর্ষস্থানীয় অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে টিকা তৈরির পর নয়াদিল্লি তাদের সম্ভাব্য কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বাংলাদেশকে সরবরাহ করবে।

শ্রিংলা বলেন, ‘কোভিড ভ্যাকসিন তৈরি করা হলে বন্ধু, অংশীদার ও প্রতিবেশীরা কোনও কথা ছাড়াই এটি পাবে। বাংলাদেশ আমাদের জন্য সবসময়ই একটি অগ্রাধিকার।’

তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী ভ্যাকসিনের ৬০ শতাংশ উৎপাদনকারী ভারত এখন ভ্যাকসিনটি ব্যাপক আকারে উৎপাদন করার পর্যায়ে পৌঁছেছে।

শ্রিংলা বলেছেন, গতকাল তিনি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভারতে কভিড-১৯ মহামারি নিয়ন্ত্রণে গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপ সম্পর্কে অবহিত করেন।

শ্রিংলা বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশের সঙ্গে বিদ্যমান চমৎকার সম্পর্ক এগিয়ে নিতে এমনকি মহামারী পরিস্থিতিতেও তাকে ঢাকা পাঠিয়েছেন।

শ্রিংলা বলেন, ‘আমি এখানে আসার কারণ হল আমাদের প্রধানমন্ত্রী উপলব্ধি করেছেন যে, কোভিড পরিস্থিতির কারনে আমাদের মধ্যে খুব বেশি যোগাযোগ হয়নি। কিন্তু সম্পর্ক (ভারত-বাংলাদেশ) অব্যাহত রাখতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদেরকে অবশ্যই শক্তিশালী দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের দিকে এগিয়ে যেতে হবে এবং আমি মূলত সে বিষয়টি দেখার জন্যই এসেছি।’

দু’দেশের পররাষ্ট্র সচিব রোহিঙ্গা সঙ্কটের সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়েও আলোচনা করেন এবং ভারত নিরাপদ, সুরক্ষিত ও টেকসই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সম্পর্কে তার অবস্থান পুনর্বার ঘোষণা করে।

ঢাকায় দ্বিতীয় দিনে ভারতের পররাষ্ট্র সচিব তার অবস্থানস্থল সোনারগাঁও হোটেলে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ সভাপতি ও সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুর সঙ্গে বৈঠক করেন। এ ছাড়া, বাংলাদেশের অন্যতম বৃহত্তম শিল্প গ্রুপ বসুন্ধরার চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহানের সঙ্গেও সাক্ষাৎ ও মতবিনিময় করেন।